নাইজেরিয়ার দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের অবাফেমি আওলোও বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তর পর্যায়ের ছাত্রী মনিকা ওসাজি। দেশটির সোশ্যাল মিডিয়াতে তার একটি অডিও রেকর্ড এখন ভাইরাল।

সেই অডিওতে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপক তাকে যৌন সম্পর্কের প্রস্তাব দিয়েছেন। রাজি হলে মনিকাকে পরীক্ষায় পাস করিয়ে দেবেন, আর না হলে পরীক্ষায় ফেল করিয়ে দেবেন বলে মনিকাকে ভয় দেখান।

মনিকা মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনকে জানান, তিনি জানেন ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ কেউ বিশ্বাস করবে না। তাই তিনি এই ফোন কল রেকর্ড করেছেন। অডিও রেকর্ডটি অনলাইনে ফাঁস হয়ে যায় এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়ে।

মনিকা ওসাজি দাবি করেছেন, তিনি এটি ফাঁস করেননি। তবে এটি অনলাইনে ভাইরাল হওয়ার আগে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে রেকর্ডটি জমা দিয়েছিলেন তিনি।

অডিও রেকর্ডটি অধ্যাপককে বলতে শোনা গেছে, মনিকা যদি তার সঙ্গে পাঁচ বার যৌন সম্পর্ক করতে রাজি হন তাহলে তিনি তাকে পরীক্ষায় পাস করিয়ে দেবেন। নয়তো ফেল করাবেন।

কিন্তু মনিকা তাতে আপত্তি জানিয়ে বলেন, ঠিক আছে আমাকে ফেল করিয়ে দেন। পরীক্ষায় পাসের জন্য আপনার সঙ্গে পাঁচ বার যৌন সম্পর্কে আমি রাজি নই।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’র মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী যৌন হয়রানি ও কেলেঙ্কারির বিরুদ্ধে মুখ খুলছেন শত শত, হাজার হাজার, লাখ লাখ নারী। তারমধ্যে মনিকার এই ঘটনা নাইজেরিয়া জুড়ে আলোচিত হচ্ছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here