সারাদেশে চলছে মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযান। ডুব দিয়েছে নাম করা ব্যবসায়ীরা। ছোট ব্যবসায়ীদের দিনের বেলায় এলাকায় দেখা গেলেও গ্রেফতারের ভয়ে রাতে বাড়িতে থাকছে না। এরমধ্যেও মাদকের বেচাকেনা থেমে নেই। মাদক বিক্রেতারা মোবাইলের মাধ্যমে ডেকে নিয়ে মাদক বিক্রি করছেন বলে জানা গেছে।

ইতোমধ্যেই এই অভিযানকালে দেশের বিভিন্ন স্থানে মাদক বিক্রেতাদের সাথে আইনশৃংখলা বাহিনীর কথিত বন্ধুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন ৫২ জন। যদিও এই বন্দুকযুদ্ধ নিয়ে রয়েছে বিতর্ক। তবে থেমে নেই গ্রামে মাদকের কেনাবেচা। কৌশল পাল্টে মাদক ব্যবসা চালাচ্ছেন অনেকেই।

সচেতনমহল জানান, ‘সম্মিলিতভাবে (জনগণ, নিরাপত্তা বাহিনী) মাদক প্রতিরোধে সোচ্চার না হলে অভিযান দুরূহ হবে। শহরের মত প্রতিটি গ্রামে গ্রামে পাড়া মহল্লায় এমন অভিযান প্রত্যাশা করছেন তারা।’

বিশেষ করে শহরের মাদক ব্যবসায়ীরা গ্রামে আশ্রয় নিয়ে ব্যবসার ধরন পরির্বতন করে মাদক তুলে দিচ্ছে আসক্তদের হাতে। অভিযান শুরুর পর গ্রেফতার এড়াতে শহর ছেড়ে গ্রামে আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে আশ্রয় নিচ্ছে তারা। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আসক্তদের গ্রামে ডেকে নিয়ে মাদক কেনাবেচা করছে মাদক ব্যবসায়ীরা।

তবে দাম বেড়েছে দ্বিগুণ। ৮০ থেকে ১০০ টাকার ইয়াবা ট্যাবলেট ১৫০ থেকে ২০০ টাকা, ১০০ থেকে ১২০ টাকার এক পুরিয়া হেরোইন ২০০ থেকে ২৫০ টাকা, ৫০ থেকে ৬০ টাকার এক পুরিয়া গাঁজা ১০০ থেকে ১২০ টাকা, ৬০০ থেকে ৮০০ টাকার ১০০ মিলির এক বোতল ফেনসিডিল ১২০০ টাকা থেকে ১৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আইনশৃংখলা বাহিনীর মাদকবিরোধী অব্যাহত অভিযান এবং বন্দুকযুদ্ধে নিহতের ঘটনার পর শহরে মাদক ব্যবসা কমে এসেছে। তবে মাদকাসক্তদের চাপ বেড়েছে গ্রামে। শহর ছেড়ে এখন গ্রামে মাদকের খোঁজে যাচ্ছে আসক্তরা। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত মোটরসাইকেল নিয়ে মাদকের খোঁজে গ্রামের বিভিন্ন মেঠোপথ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন মাদক সেবীরা। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করে নির্ধারিত স্পটগুলোতে পৌঁছে যাচ্ছে তারা।

একাধিক মাদকাসক্তরা জানায়, মাদকের বিরুদ্ধে সারাদেশে বিশেষ অভিযানের কারণে সদর (সিটি, উপজেলা পৌরসভা) স্পটগুলোতে আর মাদক বিক্রি হচ্ছে না। কৌশলে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করে কোন এক গ্রামের ঠিকানায় গিয়ে মিলছে মাদক। তবে অভিযানের দোহায় দিয়ে ব্যবসায়ীরা চড়া দামে মাদক বিক্রি করছেন।

রাজশাহী জেলার পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমিত চৌধুরী জানান, ‘মাদক ব্যবসায়ীদের হালনাগাদ তালিকা হয়েছে। সে তালিকা অনুযায়ী সারাদেশে মাদকবিরোধী অভিযান চলছে। এ অভিযান অব্যহত থাকবে। কোনভাবেই মাদক ব্যবসায়ীদের ছাড় দেয়া হবে না। তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here