কলকাতার শান্তিনিকেতন থেকে ফিরে কলকাতার জোড়াসাঁকোতে ঠাকুরবাড়ি পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্বভারতীতে বাংলাদেশ ভবন উদ্বোধন ও সমাবর্তন অনুষ্ঠান শেষে তিনি শুক্রবার দুপুরে হেলিকপ্টারে কলকাতায় ফিরে আসেন। এর পর বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে শেখ হাসিনা যান উত্তর কলকাতার জোড়াসাঁকোতে। ঘুরে দেখেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাড়ি। সেখানে গিয়ে অনেকটাই আবেগী হয়ে পড়েন বাংলার এই ছাত্রী। আপন মনে আবৃত্তি করেন রবীন্দ্রনাথের একাধিক কবিতা।

ঠাকুরবাড়িতে প্রবেশের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথমে দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর ও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর তিনি ঘুরে দেখেন গোটা ঠাকুরবাড়ি।

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সব্যাসাচী বসু জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঠাকুরবাড়ির জাপানি গ্যালারি, চীনা গ্যালারি, মিউজিয়াম, কবির আঁতুড়ঘর ও কবি যেখানে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছিলেন সেই প্রয়াণঘর ঘুরে দেখেন।

তখন শেখ হাসিনা বলেন, জোড়াসাঁকোর ঠাকুরবাড়িতে একটি বাংলাদেশ গ্যালারি তৈরি করা হবে। এদিন ঠকুরবাড়িতে এসে কার্যত আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বললেন, ঠাকুরবাড়ি আমার কাছে অত্যান্ত পবিত্র একটি স্থান। কলকাতার অনেক কিছুই বদলে গেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here