বিয়ে, পরিবার, সন্তান- এটাই পারিবারিক প্রথা। কিন্তু এর পাশাপাশি অন্যান্য ধরনের পারিবারিক রূপও সমাজে জায়গা করে নিচ্ছে৷ এগুলো আইনগতভাবে স্বীকৃতিও পাচ্ছে৷ যেমন বিয়ে ছাড়াই একত্রে বসবাস, প্যাচওয়ার্ক ফ্যামিলি, সিংগেল প্যারেন্ট, সমকামী দম্পতি ইত্যাদি জীবনধারাকেও মেনে নেওয়া হচ্ছে৷ যদিও সেগুলো আমাদের দেশে নয়, উন্নত বিশ্বে দেখা যায়। কিন্তু আড়ালে-আবডালে আমাদের দেশেও বিয়ে ছাড়াই একত্রে বসবাস দিন দিন বেড়েই চলেছে। আর এই প্রবণতা সবচেয়ে বেশি দেখা যায় মিডিয়াঙ্গনে। কারও কারও সম্পর্ক তো ওপেন সিক্রেট। তাদের বেলায় কেউ প্রশ্ন তুললে নিজেরাই সোজাসাপ্টা বলে দেন, ‘আমরা লিভ টুগেদার করছি।’

সৃজিত-জয়া

সৃজিত মুখোপাধ্যায় ও জয়া আহসান
সৃজিত মুখোপাধ্যায় ও জয়া আহসান

কলকাতার গুণী নির্মাতা সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে কাজ করেছেন বাংলাদেশের জয়া আহসান। তবে কাজটা এতোই গভীরে গেছে যে, তাদের প্রেম কাহিনী নিয়ে নানা গুঞ্জন শোনা যায়। জয়া কলকাতায় নাকি সৃজিতের বাসাতেই থাকেন। তবে এ ব্যাপারে সৃজিত মুখোপাধ্যায় বলেন, ‌‘জয়ার মতো অভিনেত্রী…জয়ার মতো মানুষ… জয়ার মতো নারী আমি খুব খুব কম দেখেছি। এ সম্পর্ক বন্ধুত্ব, প্রেম বা তার চেয়েও বেশি কিছু।’

নিজের বিয়ে প্রসঙ্গে এই গুণী পরিচালক বলেন, ‘কার সঙ্গে কবে হবে জানি না। তবে আমি বিয়ে করব ভেবেই প্রেম করতে চেয়েছি। এমনও হয়েছে, কোনো আবেগঘন মুহূর্তে কেউ বলে ফেলেছে, ‘কাস্টিং-টা কী হলো?’ তার ছিঁড়ে গেছে সেই দিন… প্রেম আর কাজ আমি জীবনেও গুলিয়ে ফেলিনি।’

২০১১ সালে মডেল অভিনেতা ফয়সাল আহসানের সঙ্গে জয়ার আনুষ্ঠানিক ডিভোর্স হয়। এরপর থেকেই শুরু হয় উদ্যাম জীবন। বাংলাদেশে একজন তরুণ নির্মাতার সঙ্গেও জয়ার সম্পর্ক নানা কানাঘুষা হয়েছে। কিন্তু সেসব পুরনো স্মৃতিকে নাকি ঝেঁটিয়ে বিদায় করেছেন এই গুণী অভিনেত্রী। শোনা যাচ্ছে, জয়া নাকি বলে বেড়াচ্ছেন, যে কোনো সময় আবারো বিয়ে করবেন তিনি।

শাহীন-মম

শিহাব শাহীন ও জাকিয়া বারী মম
শিহাব শাহীন ও জাকিয়া বারী মম

পরিচালক শিহাব শাহীনের সঙ্গে অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মমর প্রেমের গুঞ্জন দীর্ঘদিনের। ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মম। মধ্যরাতে শিহাব শাহীনই তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। নিবন্ধন বইয়ে শিহাব শাহীনের নাম দেখার পর আলোচনায় আসে এ নায়িকার সঙ্গে নির্মাতার প্রেমের বিষয়টি।

জুটি হয়ে শুধু কাজই নয়। একসঙ্গে দেশ-বিদেশ ঘোরাও হয় তাদের। অনেকে বলেন, মমর উত্তরার বাসায় নিয়মিতই যাতায়াত শাহীনের। আবার নির্মাতার বাসায় এই অভিনেত্রীর। কেউ কেউ তো বলেন, তারা বিয়েও করেছেন। আবার সেই বিয়ে ভেঙেও গেছে।

সুমন-মৌসুমী

মৌসুমী হামিদ ও সুমন আনোয়ার
মৌসুমী হামিদ ও সুমন আনোয়ার

জনপ্রিয় নাট্য নির্মাতা সুমন আনোয়ার ও মৌসুমী হামিদ প্রেম করছেন এমন গুঞ্জন অনেক আগের। সেটা এখন শোবিজে ওপেন সিক্রেট। প্রেমের বয়স দুবছর। এমনকি দেশের বাইরে একই সঙ্গে ঘুরতে যাওয়ার খবরও পাওয়া যায়। এখন নতুন খবর হলো, বিয়ে না করেও তারা দুজন একসঙ্গে থাকেন।

নির্মাতা সুমন আনোয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ‘প্রেম করে বিয়ে করব। এখানে তো কিছু দোষের দেখছি না। একজন নির্মাতা আর অভিনেত্রীর মধ্যে প্রেমও তো নতুন কিছু নয়।’

২০১৩ সালে সুমন আনোয়ার বিয়ে করেছিলেন মডেল ও অভিনেত্রী আয়শা মনিকাকে। অনাড়ম্বর সেই বিয়ের অনুষ্ঠানে অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। মনিকার সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়েছে কিনা সঠিকভাবে জানা যায়নি। অন্যদিকে মৌসুমী হামিদের সর্বশেষ বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছে বছর পাঁচেক হলো। জানা গেছে, কোনো এক দূর্ঘটনায় মৌসুমীর মুখের অনেকটা অংশ থেঁতলে যায়। তখন থেকেই তার বয়ফ্রেন্ড প্রতারণা শুরু করে। একটা সময়ে হাতে নাতে ধরা খায় মৌসুমীর কাছে। তখনই ছেদ হয় সে সম্পর্কের।

অনিমেষ-ভাবনা

অনিমেষ আইচ ও ভাবনা
অনিমেষ আইচ ও ভাবনা

নাট্যনির্মাতা অনিমেষ আইচ ও অভিনেত্রী ভাবনার মধ্যে প্রণয় সম্পর্ক নিয়ে নাট্যাঙ্গনে এখন বেশ গুঞ্জণ চলছে। এমন কথাও শোনা যাচ্ছে, তারা একটি ফ্ল্যাটে একসঙ্গে বসবাস করছেন। ভাবনার পরিবার থেকে বিভিন্নভাবে নিরস্ত করার চেষ্টা করেও তাকে এ পথ থেকে ফেরানো যায়নি।

ভাবনার বাবা নিজেও একজন নির্মাতা। মেয়ের এমন কাণ্ড-কীর্তি দেখে তিনি নিজেও লজ্জিত বলে ঘনিষ্টজনরা জানিয়েছেন। মেয়েকে বিভিন্নভাবে বুঝিয়েও ফেরাতে পারেননি। ভাবনা অনিমেষের প্রেমে এতটাই মজেছেন যে, পরিবারের কোনো বাধাকেই তোয়াক্কা করছেন না।

ভাবনার সহকর্মীদের কেউ কেউ বলছেন, এভাবে বসবাস না করে তারা বিয়ে করে সামাজিকভাবে সংসার করলেই তো পারেন। এতে যেমন সামাজিক একটা মর্যাদা থাকত, তেমনি বিষয়টি শোভন মনে হতো। এভাবে বসবাস করে ভাবনা যেমন তার পরিবারের দুর্নাম করছেন, তেমনি মিডিয়ারও বদনাম করছেন।

অন্যদিকে পরিচয়ের ১৭ দিনের মাথায় অনিমেষ বিয়ে করতে চাইলেন দীপান্বিতাকে। কিছুটা দ্বিধায় দীপা। অনিমেষের অনুযোগ, ‘আমার ওপর কি তোমার আস্থা পুরোপুরি হয়নি এখনো?’ বিয়ে হয়েছিল। সংসার হয়েছিল। একসঙ্গে চুটিয়ে কাজও করা হয়েছে। কিন্তু সংসারটা টেকেনি।

ইফতেখার-ববি

ববি ও ইফতেখার চৌধুরী
ববি ও ইফতেখার চৌধুরী

২০১০ সালে অনন্ত জলিলের প্রযোজনায় ‘খোঁজ দ্য সার্চ’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে অভিষেক হয় ইফতেখার চৌধুরীর। প্রথম সিনেমার নায়িকা ববির হাতটা আর ছাড়েননি তিনি। পরবর্তী প্রায় সব ছবিতেই আছেন এ নায়িকা। ইফতেখারের ঘরও নাকি ভেঙেছে ববির জন্যই।

তবে দুজনে এখনো বিয়ের পিড়িতে বসেননি। তারপরও নাকি এক ছাদের তলায় দীর্ঘদিন বসবাস করছেন। আবার অনেকে বলছেন, তার বিয়ে করেছে। ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করে তা প্রকাশ করছেন না।

শোবিজে এমন আরও অনেকেই আছেন, যারা পছন্দের মানুষের সঙ্গে একই ছাদের নিচে থাকেন বিয়ে ছাড়া। হয়তো মুখ পোড়া গরুর মতো বিয়েটাকে তারা ভয় পান। তাই মনের সঙ্গে মন মিলিয়ে চলছে আলিঙ্গন জীবন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here