জুনের প্রথম সপ্তাহে টি-টোয়েন্টি সিরিজ। প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। দেরাদুনে ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে ৩, ৫, ৭ জুন। বাংলাদেশ দল ভারতের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়বে আগামীকাল। এ লক্ষ্যে রোববার আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন সাকিবের অনুপস্থিতিতে তার ডেপুটি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও আফগান সিরিজে কোচের দায়িত্ব পাওয়া কোর্টনি ওয়ালশ।

দুজনের চোখেই ভালো ক্রিকেট খেলার আশাবাদ। সিরিজ জয়ের স্বপ্ন। তিনটি ম্যাচই জিততে পারলে আরও ভালো। মাহমুউল্লাহ বলেন, ‘র‌্যাঙ্কিংয়ে ওরা আট নম্বর, আমরা দশ নম্বর। টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আমরা যখন খেলি, ওটা আমারে জন্য একটা চ্যালেঞ্জ। কিছুদিন আগেও আমাদের সামনে প্রশ্নবোধক একটা চিহ্ন ছিল। এখন ওটা আমাদের সামনে থেকে সরে গেছে। ডে বাই ডে আমরা ইমপ্রুভ করছি। এই সিরিজটি আরও একটা সুযোগ, প্রতিটি ম্যাচ জেতার। এই সিরিজটা জিততে পারলে, পরবর্তী সব সিরিজের জন্য দারুণ সুযোগ তৈরি হবে।’

আফগান লেগ স্পিনার রশিদকে সমীহ করেই কথা বলছেন রিয়াদ, ‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে রশিদ বিশ্বের সেরা বোলার। অবশ্যই তাকে সমীহ করতে হবে। তবে তাকে খেলাই যাবে না। এটা ভাবা যাবে না। আমরা বল বুঝে খেলবো। তারপরও বলবো ওদের বোলিং আক্রমণটা অনেক ভালো। আমাদের ব্যাটসম্যনাদের অনেক বেশি সচেতন থাকতে হবে। ব্যাটসম্যানরা যদি নিজেদের সেরা খেলাটা খেলতে পারে, তাহলে ইতিবাচক রেজাল্ট আশা করতে পারি।’

সাকিব ও রশিদ এক সঙ্গে খেলেছে আইপিএলে হায়দরাবাদের হয়ে। আফগান সিরিজে বাংলাদেশের ক্যাপ্টেন সাকিব। বাড়তি কোন সুবিধা পাবে বাংলাদেশ? এমন প্রশ্নে রিয়াদ বলেন, ‘সাকিব নেটে রশিদকে খেলেছে, খুব কাছ থেকে রশিদের বলও দেখেছে। ওর কাছ থেকে হয়তো আমরা সাজেশন পাবো। ওর সঙ্গে কথা বললে ওর চিন্তা সম্পর্কেও আমরা জানতে পারবো। রশিদের ব্যাপারে সাকিবের তথ্যগুলো আমাদের অনেক সাহায্য করবে দল হিসেবে।’

শ্রীলঙ্কায় সর্বশেষ নিদাহাস টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ অল্পের জন্য চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। সেই ট্রফির পর আফগানিস্তানের সঙ্গে সিরিজ। যা বেশ চ্যালেঞ্জিং মনে করছেন মাহমুদউল্লাহ, ‘নিদাহাস ট্রফির চিন্তাও করছি না। ওই পার্ট চলে গেছে। আমার করণীয় সবাইকে মোটিভেট করা। টিম ম্যানেজমেন্টের সবাই মিলে কাজ করছে। এই সিরিজটি অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে। আমাদের খুব ভালো ক্রিকেট খেলেই সিরিজটা জিততে হবে। এটা সত্য।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here