মিসর ও লিভারপুলের তারকা স্ট্রাইকার মোহাম্মদ সালাহ নিয়ে চমকপ্রদ তথ্য বেড়িয়ে এসেছে। যা শুনলে মুসলমান হিসেবে সালাহ প্রতি শ্রদ্ধা বেড়ে যাবে নিশ্চিত। জানা গেছে, ম্যাচের বাইরে যেখানেই যান না কেনো, সালাহ সবসময় একটি কোরআন শরিফ নিজের কাছে রাখেন।

অবসরে অন্যরা যখন গান শোনায়, ফাজলামিতে মত্ত, তখন সালাহ একমনে কোরআন পড়েন। এমনকি টিম বাসেও বসে বসে কোরআন পড়তে থাকেন তিনি।

বিবিসির এক সংবাদে জানানো হয়, সালাহ একজন নিবেদিত মুসলিম। তাই ধর্মচর্চায় কোনো রাখঢাক করেন না। নানা ধরনের ধর্মীয় আচার পালন করতে দেখা যায় তাকে। মাঠে হরহামেশা এর প্রমাণ মেলে। প্রতিপক্ষের জালে বল জড়িয়েই আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সেজদাহ দেন, দুই হাত তুলে মোনাজাত করেন। খেলা শুরুর আগেও দোয়া করেন। যেখানে যান সঙ্গে রাখেন কোরআন।

সবসময় কোরআন থাকে তার সঙ্গে

এরই মধ্যে ম্যাচ খেলতে বিমানে ভ্রমণকালে সালাহর কোরআন পড়ার ছবি প্রকাশ পেয়েছে। কিছু দিন আগে সালাহ জানান, আমার শরীরে কোনো ট্যাটুর চিহ্ন নেই। আমি কখনও হেয়ারস্টাইল পরিবর্তন করি না। আমি জানিও না কীভাবে নাচতে হয়। এভাবেই খেলা চালিয়ে যেতে চাই।

লিভারপুলে অভিষেক মৌসুমটা দারুণ কেটেছে সালাহর। ৪৪ গোল করার পাশাপাশি সতীর্থদের দিয়ে ১৬ গোল করিয়েছেন তিনি। ফলে তার জনপ্রিয়তা ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। ফুটবলবিশ্বে কোনো মুসলিম খেলোয়াড় এত দ্রুত আলোড়ন সৃষ্টি করতে পারেননি। মাঠে ও মাঠের বাইরে দুই জায়গায় সমানতালে তুমুল জনপ্রিয় মিসরীয় ফরোয়ার্ড।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here