ঈদে দক্ষিণাঞ্চলের ঘরমুখো মানুষের কথা মাথায় রেখে লঞ্চের কেবিনের অগ্রিম টিকিট বুকিং শুরু হচ্ছে আগামী ১ জুন থেকে। আর টিকিট পাওয়া যাবে ৫ জুন থেকে ১০ জুন পর্যন্ত। ঢাকা নদীবন্দরের (নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের) যুগ্ম পরিচালক আলমগীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আলমগীর হোসেন জানান, নদীপথে যাত্রী নিয়ে প্রতিদিন দক্ষিণাঞ্চলের ৪১ রুটে শতাধিক বেসরকারি লঞ্চ চলাচল করছে। এসব লঞ্চে প্রায় ১০ হাজার ভিআইপি, প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির কেবিন আছে। ১৫ রোজার পর থেকেই এসব লঞ্চের অগ্রীম কেবিন বুকিং দেওয়া শুরু হবে।

অতিরিক্ত যাত্রীদের চাপ সামাল দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অতিরিক্ত যাত্রীর চাপ সামাল দিতে অতিরিক্ত লঞ্চ রাখা হবে। প্রয়োজন হলেই স্পেশাল সার্ভিস চালু করা হবে। তবে ঈদে ফিটনেসবিহীন লঞ্চ চলাচলের কোনো সুযোগ নেই।

সদরঘাটের (বন্দর ও পরিবহন) বিভাগের উপপরিচালক মিজানুর রহমান এ বিষয়ে বলেন, ঈদে ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নিরাপদ করতে প্রয়োজনীয় সব কিছুই করা হবে। যাত্রীরা যাতে ভালোভাবে টার্মিনালে আসতে পারে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ, তথ্য সার্ভিস, হকার মুক্ত, যানযট মুক্তসহ সেবার মান উন্নয়নে সব ধরনের ইউটিলিটি সার্ভিস সুবিধা নিশ্চিত করার মধ্য দিয়ে যাত্রীদের নির্বিঘ্নে বাড়ি ফেরার এবং ঢাকায় আসার ব্যবস্থা করা হবে।

তবে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল ও যাত্রী পরিবহন সংস্থার (যাপ) সদস্য সচিব সিদ্দিকুল ইসলাম পাটোয়ারী জানান, এখনো যাত্রীদের মধ্যে লঞ্চের (কেবিন) অগ্রীম টিকিট বিক্রির নির্দিষ্ট কোনো তারিখ ঠিক হয়নি। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here