স্বামী প্রবাসে থাকায় পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন দুই সন্তানের জননী। আর এতে বাধা দেয়ায় বুধবার মা-বাবার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন ওই নারী। সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়নের পীর সৈদেরগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, প্রায় ১২ বছর আগে ওই গ্রামের তফজ্জুল আলীর বড় মেয়ে রিফা বেগমের (২৮) সঙ্গে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানিগঞ্জ বালিচিরি গ্রামের লন্ডনপ্রবাসী ইদ্রিস উল্লার বিয়ে হয়। তাদের পরিবারে দুটি সন্তান রয়েছে।

রিফার স্বামী প্রবাসে থাকায় তিনি তার বাবার বাড়িতে থাকেন। এ সুযোগে একই গ্রামের আরশ আলীর ছেলে এবং চার সন্তানের জনক শাহজাহানের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। তার মা-বাবা এই প্রেমে বাধা দেয়ায় রিফা বেগম ক্ষিপ্ত হয়ে বুধবার বাদী হয়ে তার বাবা তফজ্জুল আলী, মা মমতাজ বেগম (মিচিরা) ও ছোট ভাই সুয়েব আহমদকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে তার বাবা তফজ্জুল আলী বলেন, আমি তাকে অনেক নিষেধ করার পরও সে আমার কথা না শুনে ক্ষুব্ধ হয়ে গত বুধবার আমার পরিবারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে।

জাউয়াবাজার থানা পুলিশের এসআই সমিরুন বলেন, রিফা বেগমের দায়ের করা অভিযোগ সঠিক নয়। তিনি রিফার এই অভিযোগকে মিথ্যা বলে মন্তব্য করেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here