প্রায়ই বিদ্যুৎ চলে যায়। তখন বৈদ্যুতিক বাতি জ্বলে না, বিকল্প হিসেবে মোমবাতি ও হাতপাখা দিয়ে কাজ চালাতে হয়। নাজিমউদ্দিন রোডের পরিত্যক্ত কারাগারে কোনো জেনারেটর নেই। ফলে বিদ্যুৎ ও বিশুদ্ধ পানি সংকটের মধ্যে দিনযাপন করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। মানবেতর এই জীবনযাপনে তিনি শ্বাসকষ্ট ও জ্বরে ভুগছেন বলে অভিযোগ বিএনপির। নয়াপল্টনে বুধবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ অভিযোগ করেন।

ফখরুল বলেন, কারাগারের স্যাঁতসেঁতে পরিবেশ, বিশুদ্ধ পানির অভাব, গুমট আবহাওয়া ও নিয়মিত বিদ্যুৎহীনতার কারণে খালেদা জিয়ার শ্বাসকষ্ট ও জ্বর লেগেই আছে। প্রতিরাতে তার জ্বর আসছে। এটা যে কোনো সুস্থ মানুষের জন্য অত্যন্ত অ্যালার্মিং। জ্বরটা যাচ্ছে না। পরিত্যক্ত এই কারাগারে এখন কোনো জেনারেটর নেই, প্রায়ই বিদ্যুৎ চলে যাচ্ছে। বাতি জ্বলে না, মোমবাতি ও হাতপাখা দিয়ে কাজ চালাতে হয়। এই যে অমানবিকতা, এই যে হৃদয়হীনতা- এটার তুলনা নেই।

খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য বিশেষায়িত হাসপাতালে নেওয়ার আবেদন প্রধানমন্ত্রীর কাছে আটকে রয়েছে বলে ফখরুলের অভিযোগ। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে অনেকে অনুরোধ করেছেন। দেশ-বিদেশ থেকে তার কাছে অনেক অনুরোধ এসেছে যে, সাবেক প্রধানমন্ত্রীর জামিন ও চিকিৎসার ব্যবস্থা যেন করা হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত তিনি (প্রধানমন্ত্রী) কিছুই করেননি।

মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার জন্য যে রান্না হয় তার কোয়ালিটি অত্যন্ত খারাপ। বাইরে থেকে, পরিবার থেকে, তার বাসা থেকে খাবার নিতে দেওয়া হচ্ছে না। এ কথাগুলো বলতে বলতে আমরা ক্লান্ত।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বরচন্দ্র রায়, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী প্রমুখ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here