পিরোজপুরের সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের তেজদাসকাঠি এলাকায় এক ভিক্ষুকের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠেছে। বুধবার (৩০ মে) রাতে সদর থানায় নির্যাতিত কিশোরীর মা বাদী হয়ে এ ঘটনায় দুই ইউপি সদস্যসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

অভিযুক্ত দুই ইউপি সদস্য হলেন মাসুদ ও নান্টু।

এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম জিয়াউল হক জানান, দুই ইউপি সদস্য ও তিন সহযোগীকে আসামি করে মামলা করেছেন কিশোরীর মা।

নির্যাতিতা মেয়েটি দুই মেম্বারসহ পাঁচজনের কথা বলে জবানবন্দিও দিয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

জানা গেছে, ওই কিশোরীর বাবা অন্যত্র বিয়ে করলে তার অসহায় মা বর্তমানে ভিক্ষা করে সংসার চালায়। ভিক্ষা করতে যাওয়ার সময় কিশোরীকে বাড়িতে রেখেই যেতেন মা। এই সুযোগে দুই ইউপি সদস্যসহ তাদের তিন সহযোগী সাব্বির, মারুফুল ও সাইফুল কিশোরীর হাত পা ও মুখ বেঁধে ফেলে। পরে তারা পাঁচজন পালাক্রমে কিশোরীকে ধর্ষণ করে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here