কূটনৈতিকদের ব্যবহৃত হলুদ রঙের নম্বরপ্লেট লাগিয়ে বিলাসবহুল পাজেরো গাড়িতে মাদক পাচারকারী রেজাউল করিম মিলনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা দক্ষিণ বিভাগ। গত মঙ্গলবার গুলশানের শাহজাদপুর এলাকা থেকে রেজাউলকে গ্রেপ্তারকালে একটি বিদেশি পিস্তল ও ১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

পরে তার বাড়ি ও গাড়ির ভেতর থেকে ৭৫০ মিলির আটটি নীল রঙয়ের রবার্টস রক, চারটি কালো রঙয়ের এক লিটারের হুইসকি, ৭৫০ মিলি লিটারের সাতটি কালো রঙয়ের বিদেশি পিয়ারলি বে, সাদা রঙয়ের এক লিটার জ্যাক ড্যানিয়েল, নীল রঙয়ের এক লিটার হুইসকি ও ২৪ ক্যান বিয়ার উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ছাড়াও রেজাউলের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে মাদক বিক্রির ৭০ হাজার টাকা। জব্দ করা হয় হলুদ নম্বরপ্লেট লাগানো পাজেরো গাড়িটিও (নম্বর দ-৬৮-০১৫)। এই গাড়িতে করেই মাদক বহনের পাশাপাশি নিজ বাড়িতে ‘মিনি বার’ তৈরিরও অভিযোগ রয়েছে বাংলাদেশে নিযুক্ত মিসরের রাষ্ট্রদূতের সাবেক ব্যক্তিগত সহকারী (পিএ) রেজাউলের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ডিবি দক্ষিণ বিভাগের অবৈধ মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও প্রতিরোধ টিমের একজন পরিদর্শক বাদি হয়ে গুলশান থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলা একদিনের রিমান্ডে রয়েছেন রেজাউল।

ডিবি দক্ষিণের সিনিয়র সহকারী কমিশনার খন্দকার রবিউল আরাফাত লেলিন জানান, গত বছরের ডিসেম্বর মাসে বাংলাদেশে নিযুক্ত মিসরের রাষ্ট্রদূতের ব্যক্তিগত সহকারীর চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয় রেজাউল করিম মিলনকে। কিন্তু চাকরি হারানোর পরও তিনি সবাইকে আগের পরিচয়ই দিতেন। আনোয়ার নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে মাদক কিনে নিজের বাসায় রাখতেন রেজাউল। সেখান থেকেই বিক্রির কাজটি করতেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here