র‌্যাংকিং, রশিদ-মুজিব এরপর প্রস্তুতি ম্যাচে হার। বাংলাদেশ শিবিরে আফগান হুমকি যেন ক্রমাগত আসছেই। দেরাদুনে সাকিবদের বড় চ্যালেঞ্জ আফগানিস্তান। রোববার থেকে শুরু হচ্ছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। রাজীব গান্ধি স্টেডিয়ামে রাত সাড়ে আটটায় প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে আফগানদের মোকাবেলা করবে টিম বাংলাদেশ।

প্রস্তুতি ম্যাচে হেরেছে বাংলাদেশ। যা কিছুটা মানসিকভাবে পিছিয়ে দিচ্ছে। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে টস জিতে বাংলাদেশ আগে ব্যাট করতে নেমে করেছিল ৬ উইকেটে ১৪৫ রান। যে লক্ষ্য আফগানিস্তান টপকে যায় মাত্র দুই উইকেট হারিয়ে, ১৬ বল হাতে রেখেই। মানে আফগানরে জয় ৮ উইকেটের ব্যবধানে।

বাংলাদেশের হয়ে এদিন ব্যর্থ ছিলেন ওপেনার লিটন দাস ও সৌম্য সরকার। সর্বোচ্চ ৩৮ রান এসেছে মোসাদ্দেকের ব্যাটে। মুশফিকুর রহীম ২৭, সাকিব ১৯ ও সাব্বির রহমান করেন ১৮ রান। জবাবে আফগান ওপেনার হজরতউল্লাহর অপরাজিত ৬৯ রানেই দৃশ্য পাল্টে দেয়। শেষ দিকে মোহাম্মদ নবী ও শফিকুল্লাহ শাফাকের ব্যাটে জয়ের বন্দরে নিয়ে যায় দলকে।

আইপিএল খেলে দেশে ফেরার দিন সাকিব সংবাদ মাধ্যমকে বলেছিলেন, এই সিরিজে আফগানিস্তান ফেবারিট। যেহেতু তারা র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে। তবে বাংলাদেশ শিবিরের টার্গেট সিরিজ জয়। কারো কারো চোখে স্কোরটা ৩-০ করা। যাতে র‌্যাংকিংয়ে আফগানদের টপকানোর সুযোগ থাকবে।

ম্যাচপূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান জানান, ‘আমরা ব্যাটিং, বোলিং কিংবা ফিল্ডিং বলেন- তিন বিভাগেই ভালো খেলতে চাই। টি-টোয়েন্টি হোক আর টেস্ট ম্যাচ হোক, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবই কঠিন ফরম্যাট। যেদিন যে ভালো খেলবে সেদিন সেই জিতবে। আমরা এই সিরিজটি ভালো খেলেই জিততে চাই-এটাই বড় কথা।’

নিদাহাস ট্রফিতে ফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ। সেই দুরন্ত ফর্ম এই সিরিজেও থাকবে কি না। এমন প্রশ্নে সাকিব বলেন, ‘আমারে দুই-তিনজন খেলোয়াড় ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে নিতে পারে, তারা ভালো না করলে যে ম্যাচ জেতা কঠিন হবে তাও নয়। আমারে ১১ জনকেই ভালো খেলতে হবে। তাহলে গত সিরিজে যেভাবে ভালো করেছি, সেটাই বজায় থাকবে। ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগকেই ভালো করতে হবে। শুধু পেসাররে এগিয়ে আসলেই চলবে না, স্পিনারদের নিজেদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে হবে। ব্যাটিংয়েও তাই। সবাই বেশ ভালোভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছে।’

আফগানদের হারাতে হলে সব দিকেই ফোকাস রাখার আহ্বান সাকিবের, ‘সব দিকেই আমাদের ফোকাস রাখতে হবে। আফগানিস্তান দলটা বেশ ভালো। ওরে হারাতে হলে আমাদের সেরাটাই দিতে হবে। নতুন করে কিংবা আলাদা করে সেভাবে আমাদের কাজ করতে হচ্ছে না। তবে, প্রতিনিয়ত আমাদের উন্নতি হচ্ছে। এটা ধরে রাখতে চাই।’
প্রস্তুতি ম্যাচে খেলেননি তামিম ইকবাল। আজ অবশ্য তিনি থাকছেন অনুমিতভাবে। কন্ডিশন অনুযায়ী একাদশ তৈরি করবে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজম্যান্ট। দেরাদুনে প্রচণ্ড গরম ভাবাচ্ছে দুই দলকেই। আবার চলছে রমজান মাস। সে কথা বিবেচনা করেই ম্যাচ শুরুর সময়টা রাতেই করা হয়েছে।

তবে বাধা অতিক্রম করে বাংলাদেশ দল নির্ভর রয়েছে, এটা নিশ্চিত। কারণ ইতোমধ্যে সাকিবের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা গেছে দেরাদুনের ড্রেসিংরুমে সবাই মিলে আরমান আলিফের ‘অপরাধী’ গানটি গাইতে। গানের প্রথম লাইন এমন, ‘মাইয়া ও মাইয়ারে তুই অপরাধী রে। আমার যত্নে গড়া ভালোবাসা দে ফিরাইয়া দে।’ সাকিবদের এমন খোশমেজাজ বজায় থাকুক প্রথম টি-টোয়েন্টিতে। দেখা মিলুক দারুণ এক জয়ের। এমন প্রত্যাশাতেই রয়েছে সবাই।

বাংলাদেশ স্কোয়াড: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহিম, মাহমুউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন, আরিফুল হক, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাজমুল ইসলাম অপু, রুবেল হোসেন, আবু হায়দার রনি, আবুল হাসান রাজু এবং আবু জায়েদ রাহি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here