যশোরের মণিরামপুরে জিন তাড়ানোর নামে চোখে বিষাক্ত গাছের রস দেয়ায় দৃষ্টিশক্তি হারিয়েছে দেড় বছরের এক শিশু।

শুক্রবার রাতে শিশুর স্বজনরা কবিরাজ মুনসুর আলীকে আটকালে চোখ ভালো করার খরচ বহন করার শর্তে মুক্তি নিয়ে যান।

চোখ হারানো শিশু মাছুম বিল্লাহ তাহেরপুর গ্রামের শরিফুল ইসলামের ছেলে।

শিশুটির নানি মরিয়ম জানান, একমাস আগে শিশুটি জ্বরে আক্রান্ত হয়। ভয় পেয়ে জ্বর হয়েছে- এমন ভাবনায় তাকে পার্শ্ববর্তী কাশিপুর গ্রামের কথিত কবিরাজ মুনসুর আলীকে খবর দেয়া হয়।

কবিরাজ শিশুকে দেখে জানায়, নিজ এলাকায় তার চিকিৎসা করা যাবে না। তাকে (শিশু) নিতে হবে তার দাদার বাড়ি উপজেলার জালালপুর গ্রামে।

শিশুর নানী মরিয়ম জানান, কবিরাজের কথামতে জালালপুর গ্রামে নেয়া হয় মাছুমকে।

শিশুর উপর জিনের আঁছড় লেগেছে- এমন কথা বলে শিশুর শরীরে ঝাড়ফুঁক দেয়াসহ চোখের মধ্যে ওষুধ নামের তরল রস দেয়া হয়। এর কয়েক দিন পর মাছুম দু’চোখ দিয়ে কিছুই দেখতে পাচ্ছে না বলে জানান নানী মরিয়ম।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here