ভয়াবহ ভূমিকম্পে যুক্তরাজ্যের রাজধানী ও ইউরোপের ঐতিহ্যবাহী শহর লন্ডন পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যেতে পারে বলে সম্প্রতি সতর্ক করেছেন বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন, যে কোনো সময় লন্ডনে এই ভূমিকম্প আঘাত হানতে পারে। এতে মাটিতে মিশে যেতে পারে শহরের অধিকাংশ স্থাপনা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টারের প্রতিবেদনে জানানো হয়, সময়টা নির্দিস্ট করে বলা সম্ভব না হলেও এমন ভূমিকম্পের আশঙ্কা জোড়ালো হয়েই দেখা দিয়েছে। যার তথ্য সম্প্রতি আবিষ্কার করেছেন লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের একদল গবেষক। তারা বলছেন ভূমিকম্পের ফলে লন্ডনের মধ্যাঞ্চল এবং ক্যানারি ঘাট সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হবে।

গবেষকেরা আরও বলছেন, ভূগর্ভস্থ টেকটনিক প্লেটে বড় ধরণের ফাটলের সৃষ্টি হওয়ায় শহরটিকে ঘিরে ভূমিকম্পের এমন আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ৫ ছাড়িয়ে যেতে পারে। এবং তা সত্যিই হলে শহরটিতে ভয়াবহ বিপর্যয় দেখা দেবে।

অবশ্য লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা বলছেন, ভূগর্ভস্থ প্লেটে ফাটল দেখা গেলেও তাতে লন্ডনে ভূমিকম্পের আশঙ্কা খুবই কম। তাদের হিসেবে আশঙ্কার হার হাজারে এক শতাংশ। কারণ ভূগর্ভস্থ প্লেট খুবই ধীর গতিতে স্থানচ্যুত হচ্ছে। ফলে এর প্রভাবে ভূমিকম্পের আশঙ্কা দেখা দিলেও তা হতে অনেক সময় লেগে যাবে। টেকটনিক প্লেটের স্থানচ্যুত হওয়ার গতি এতটাই ধীর যে, বছরে মাত্র এক থেকে দুই মিলিমিটার ঘটে থাকে।

তবে ইম্পেরিয়াল কলেজের বেসামরিক পরিবেশ বিষয়ক প্রকৌশলী ড. রিচার্ড গেইল জানান, গতি খুব ধীর মনে হলেও এর ভয়াবহতা কিন্তু মারাত্মক হতে পারে। কেননা ভূগর্ভস্থ প্লেটের কারণে যে স্থানগুলো আক্রান্ত হবে তা অত্যন্ত জনবহুল।

রিচার্ড এটাও জানান, যদি সত্যি সত্যিই ভূমিকম্প আঘাত হানে তবে তা ইতিহাসের অন্যতম ভয়াবহ ঘটনা হিসেবে স্থান লাভ করবে। তার মতে, আদতে ভূমিকম্পের মাত্রা ৫ বলে ধারণা করা হলেও প্রকৃতপক্ষে তা ৬ মাত্রাও ছাড়িয়ে যেতে পারে।

আসন্ন ভূমিকম্পের কথা মাথায় রেখে তাই পরবর্তীতে ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা বজায় রাখার পরামর্শও দিচ্ছেন রিচার্ড। মূলত ভবনের গঠন নিয়ে পরীক্ষা চালাতে গিয়েই তথ্যটি আবিষ্কার হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here