না ব্যাটিং, না বোলিং। সব ভার্সনেই ব্যর্থ বলা চলে। দেরাদুনে আফগান শিবিরের কাছে যেন সাকিবদের অসহায় আত্মসমর্ণ। প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে রোববার রাতে আফগানদের কাছে ৪৫ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। লজ্জার হারে শুরু সাকিবদের।

সিরিজের আগে অনেক কথা হয়েছে আফগানদের নিয়ে। এর মধ্যে ছিল র‌্যাংকিং, আতঙ্ক জাগানিয়া লেগ স্পিনার রশিদ খান। রশিদ খান ঠিকই জ¦লে উঠলেন। যার কথা আলোচনায় ছিল না, সেই পেসার শাপুর জাদরান দেখালেন শেষের চমক। রুবেলের স্ট্যাম্প ভেঙে বাংলাদেশ শিবিরকেই যেন চুরমার করে দিলেন। ১৬৮ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে বাংলাদেশ পুরো ২০ ওভারও টিকতে পারল না। ১৯ ওভারে অলআউট ১২২ রানে।

আগে ব্যাট করতে নেমে আফগানিস্তান করে ৮ উইকেটে ১৬৭ রান। জবাবে শুরু থেকেই ধুকেছে বাংলাদেশ। দুই হার্ডহিটার তামিম ও সাব্বির গোল্ডেন ডাক। টিকতে পারেননি সাকিবও (১৫)। আশা জাগাচ্ছিল লিটন ও মুশফিকের ব্যাট। নবীর বলে এলবি ৩০ রান করা লিটন। রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে রশিদের বলে আত্মাহুতি দিলেন মুশফিক (২০)। পরের বলেই আউট সাব্বির। চোখ-কান খোলা রাখা মাহমুদউল্লাহও পারেননি। জাদরানের বলে লং অফে তুলে দিলেন ক্যাচ। ১৮তম ওভারে জাদরান তুলে নিলেন তিন উইকেট। এর মধ্যে রুবেল বোল্ড আউট, অফ স্ট্যাম্প ভেঙে ছিটকে পড়ল অনেক দূরে। সঙ্গে বাংলাদেশের জয়ের আশাও।

ব্যাট হাতে আফগানদের হয়ে সর্বোচ্চ ৪০ রানের ইনিংস ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদের। তবে শেষের দিকে সামিউল্লাহ শেনওয়ারি (১৮ বলে ৩৬) ও শফিকুল্লার (৮ বলে ২৪) খণ্ড ঝড়ে বড় স্কোর পায় আফগান শিবির। বাংলাদেশের হয়ে বল হাতে রাজু ও মাহমুদউল্লাহ দুটি, রুবেল, সাকিব ও রাহী নেন একটি করে উইকেট।

তিন ওভারে ১৩ রানে তিন উইকেট নেওয়া আফগানিস্তানের তারকা লেগ স্পিনার রশিদ খান জিতেছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here