ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর দোধাতোগুরুর সেলিব্রিটি লেআউটের একটি নির্মাণাধীণ বহুতল ভবনের পাশের ঝোঁপে হঠাৎ একটি শিশুর কান্না সবাইকে চমকে দিয়েছিল। এ নিয়ে খবর যায় পুলিশে। জন্মের পরই কেউ একজন একটি পলিথিনের ব্যাগে মুড়িয়ে শিশুটিকে ফেলে গিয়েছিল সেখানে।

কিন্তু পরিত্যক্ত অথচ নিষ্পাপ এই শিশুটিকে নে নেবে তা নিয়ে যখন সবাই ফিসফাস করছে, তখনমোয়ের মমতা নিয়ে এগিয়ে এলেন নারী কনস্টেবল অর্চনা। শিশুটিকে পরম মমতায় কোলে নিয়ে নিজের বুকের দুধ পান করিয়ে তার প্রাণ বাঁচিয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, প্লাস্টিকের ব্যাগে মোড়ানো ছোট শরীরটা খুঁজে পেয়েছিলেন এক নারী। তখনও সেখানে প্রাণ ধুকপুক করছিল। তখনই পাশের এক দোকানদারকে সব জানান ওই নারী। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে ব্যাঙ্গালুরুর দোধাতোগুরুর সেলিব্রিটি লেআউটের একটি নির্মাণাধীণ বহুতল ভবনের পাশের ঝোঁপ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করেন।

স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে অর্চনা নামে এক নারী কনস্টেবলের তত্ত্বাবধানে শিশুটিকে রাখা হয়। ক্ষুধায় ছটফট করতে থাকা ওই সদ্যজাত শিশুর কান্না শুনে স্থির থাকতে পারেননি সদ্য মা হওয়া অর্চনা। বাড়িতে তার তিন মাসের শিশুসন্তান রয়েছে।

ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম বলছে, মাতৃত্বকালীন ছুটি কাটিয়ে সবে কাজে যোগ দিয়েছেন তিনি। পরিত্যক্ত শিশুটিকে স্তন্যপান করান ওই পুলিশকর্মী। বাচ্চাটিকে কিনে দেয়া হয় নতুন জামাকাপড়। শুধু তাই নয়, ওই সদ্যজাতের নামকরণ হয় কর্নাটকের নতুন মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামীর নামে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here