খেলার ছলে হঠাৎ এক টাকার একটি কয়েন গিলে ফেলে পাঁচ বছরের এক শিশুকন্যা সালমা আফরোজ। শিশুটির খাদ্যনালিতে আটকে যায় কয়েনটি। তাতেই বাধে বিপত্তি। দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা বৃহস্পতিবার দুপুরে গলা থেকে কয়েনটি বের করে আনেন। এখন শিশুটি শঙ্কামুক্ত। খবর: এবেলার।

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পুরাতন মালদার যাত্রাডাঙা গ্রামে।

জানা যায়, বুধবার বিকালে বাড়িতে খেলছিল পুরাতন মালদার বাসিন্দা পেশায় রাজমিস্ত্রি হাসিউর রহমানের মেয়ে সালমা আফরোজ (৫) ও ছেলে সালিম রহমান (২)।

এ সময় খেলার ছলেই অসাবধানতাবশত এক টাকার একটি বড় কয়েন গিলে ফেলে সালমা। সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় চরম শ্বাসকষ্ট। সমস্যা বুঝতে পেরে প্রথমে নিজেরাই গলার ভেতর থেকে কয়েকবার বের করার চেষ্টা করেন হাসিউর ও তার স্ত্রী ঝথিখা বিবি। কিন্তু এতে বিপদ আরও বাড়ে। আরও গভীরে গিয়ে খাদ্যনালিতে আটকে যায় টাকার কয়েনটি।

শ্বাসকষ্টের পাশাপাশি খাবারও বন্ধ হয়ে যায় শিশুর। পরে দ্রুত মেয়েটিকে নিয়ে যাওয়া হয় মৌলপুর ব্লক হাসপাতালে। সেখান থেকে তাকে স্থানান্তর করা হয় মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

বুধবার বিকালে ওই শিশুর গলার এক্স-রে করানোর পর এক টাকার কয়েন আটকে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হন চিকিৎসকরা। কিন্তু পেটে খাবার থাকায় জীবনহানির আশঙ্কা ছিল শিশুটির। তাই অস্ত্রোপচারের ঝুঁকি নেয়া হয়নি।

প্রায় ২০ ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবারের দুপুরে চিকিৎসক অতীশ হালদারের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি টিম কোনো রকম কাঁটাছেড়া ছাড়াই বিশেষ পদ্ধতিতে গলার ভেতরে পাইপ ঢুকিয়ে বের করে আনে কয়েনটি।

চিকিৎসদের দাবি, মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ ধরনের অস্ত্রোপচার এটাই প্রথম।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here