বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে প্রচুর সৈনিক নেওয়া হবে। পুরুষ ও নারী সবাই আবেদন করতে পারবে। সম্প্রতি বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। আগ্রহী ও যোগ্য হলে আবেদন করতে পারবেন আপনিও।

শিক্ষাগত যোগ্যতা
সাধারণ ট্রেড: সাধারণ ট্রেডে (জিডি) পুরুষ ও নারী প্রার্থীদের নিয়োগ দেওয়া হবে। মাধ্যমিক পাস হলেই আবেদন করা যাবে। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাস নারী প্রার্থীরা অগ্রাধিকার পাবেন। তবে আবেদনের জন্য মাধ্যমিকের ফল ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০ থাকতে হবে।

কারিগরি ট্রেড: কারিগরি ট্রেডে শুধু পুরুষ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের জন্য প্রার্থীদের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় পাস হতে হবে। তবে চালক পদের জন্য যেকোনো বিষয়ে মাধ্যমিক পাস হলেই আবেদন করা যাবে। সেক্ষেত্রে গাড়ি চালানোয় দক্ষতা ও বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকতে হবে। টিটিটিআই হতে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণের সনদপ্রাপ্ত প্রার্থীরা যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। আবেদনের জন্য মাধ্যমিক পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ থাকতে হবে।

শারীরিক যোগ্যতা
পুরুষ প্রার্থীদের উচ্চতা ন্যূনতম পাঁচ ফুট ছয় ইঞ্চি হতে হবে। তবে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের পুরুষদের ক্ষেত্রে উচ্চতা কমপক্ষে পাঁচ ফুট চার ইঞ্চি হলে আবেদন করা যাবে।

এ ছাড়া নারী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা ন্যূনতম পাঁচ ফুট তিন ইঞ্চি এবং ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের ক্ষেত্রে পাঁচ ফুট এক ইঞ্চি হতে হবে।
পুরুষ প্রার্থীদের শারীরিক ওজন ৪৯.৯০ কেজি এবং নারী প্রার্থীদের ওজন ৪৭ কেজি হলে যোগ্য বিবেচিত হবেন।

পুরুষ প্রার্থীদের বুকের ন্যূনতম মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩০ ইঞ্চি ও স্ফীত অবস্থায় ৩২ ইঞ্চি হতে হবে। নারী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে স্বাভাবিক অবস্থায় ২৮ ইঞ্চি ও স্ফীত অবস্থায় ৩০ ইঞ্চি থাকতে হবে।

অন্যান্য যোগ্যতা
সাধারণ ট্রেডে (জিডি) পুরুষ ও মহিলা প্রার্থীদের বয়স ২৭ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী ১৭ থেকে ২০ বছর হতে হবে। কারিগরি ট্রেডের ক্ষেত্রে প্রার্থীদের বয়স হতে হবে ১৭ থেকে ২১ বছর। তবে ড্রাইভার ট্রেডের জন্য বয়সসীমা ১৮ থেকে ২১ বছর।

প্রার্থীদের অবিবাহিত হতে হবে। তালাকপ্রাপ্ত প্রার্থীরা আবেদনের সুযোগ পাবেন না। এ ছাড়া প্রার্থীদের সাঁতার জানতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া
প্রার্থীরা এসএমএস ও অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। টেলিটকের প্রিপেইড নম্বর থেকে বিজ্ঞপ্তিতে দেওয়া নিয়ম অনুসরণের মাধ্যমে এসএমএস করতে হবে। এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন শুরু ১ জুন ২০১৮ থেকে, আবেদনের শেষ তারিখ ৩০ জুন ২০১৮।

বেতন ও সুযোগ-সুবিধা
নিয়োগপ্রাপ্তরা নির্ধারিত স্কেল অনুযায়ী বেতন-ভাতা ও রেশন সুবিধা পাবেন। রয়েছে বিনামূল্যে বাসস্থান, পোশাক, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে পরিবারের চিকিৎসা, সন্তানের পড়ালেখা ও উচ্চশিক্ষার সুযোগ। থাকবে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে যাওয়ার সুযোগ ও সেনাপল্লীতে প্লট পাওয়ার সুবিধা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here