রোজায় কড়া নাড়ছে রাশিয়া বিশ্বকাপ। এরইমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে সব প্রস্তুতি। আলোয় ঝলমল করছে মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়াম থেকে সরানস্ক শহরের মরডোভিয়া এরিনা। পুরো বিশ্ব অধীর আগ্রহে তাকিয়ে রয়েছে ফুটবলে সবচেয়ে বড় লড়াইয়ের জন্য।

কিন্তু এতো কিছুর মধ্যেও মাঠে রাশিয়ান হুলিগানরে বর্ণবিদ্বেষী কার্যকলাপের প্রবণতা চিন্তায় ফেলছে ইংরেজ ফুটবলারদের। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপের সময় মাঠ ও মাঠের বাইরে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য বা আকার ইঙ্গিত যে মোটেই বরদাস্ত করা হবে না, তা সাফ জানিয়ে দিলেন ফিফা প্রেসিডেন্ট গিয়ান্নি ইনফান্তিনো। এই সমস্যা প্রতিরোধে রেফারিদেরও মাঝপথে ম্যাচ থামিয়ে দেয়ার বিশেষ ক্ষমতা ও অধিকার দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিশ্বকাপ চলাকালীন গুরুতর সমস্যার কারণ হয়ে উঠতে পারে এই বর্ণবিদ্বেষী মনোভাব, যে বিষয়ে রাশিয়ানদের কুখ্যাতি বিশ্বজোড়া। গত মাসে সেন্ট পিটার্সবার্গে একটি প্রীতি ম্যাচে একদল উগ্র রুশ সমর্থক কয়েকজন ফরাসি ফুটবলারের উদ্দেশ্যে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য করে। যার জেরে রাশিয়ার ফুটবল ইউনিয়নকে সাড়ে ৩৮ হাজার ডলার জরিমানাও দিতে হয়। এই ঘটনার পর প্রশ্ন উঠেছে যে, রাশিয়া বিশ্বকাপে বর্ণবিদ্বেষের আগুন জ্বলে উঠবে না তো?

গিয়ান্নি ইনফান্তিনোর বক্তব্য, ‘বর্ণবিদ্বেষ, মানবাধিকার বা নিরাপত্তা যাই বলুন, এসব নিয়ে আমরা চিন্তিত নই। এসব আটকাতে যথেষ্ট ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। রেফারিদের পুরো ক্ষমতা দেয়া থাকবে, ম্যাচ চলাকালীন এমন ঘটনা ঘটলে তারা ম্যাচ সাময়িক বন্ধ রাখতে পারবেন। এমনকি, প্রয়োজনে ম্যাচ পরিত্যক্তও ঘোষণা করতে পারেন।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here