ভারতের বর্ধমানে এক তরুণীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে রমজান মাসেই মসজিদ থেকে এক মৌলভীকে আটক করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, ওই তরুণী ঝাড়ফুঁক করাতে বর্ধমানের ভাঙা মসজিদে নিয়ে যান এক নারী। সেখানেই বদরুদ্দিন শেখ নামে ওই মৌলভী তরুণীর শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ উঠেছে। খবর জি নিউজ।

নির্যাতিতার মায়ের অভিযোগ, গত সোমবার মৌলভীর সঙ্গে দেখা করতে মেয়েকে নিয়ে ভাঙা মসজিদে গিয়েছিলেন তিনি।

কথায় কথায় নিজেকে ঝাড়ফুঁকে দক্ষ বলে দাবি করেন ওই মৌলভী। এরপর তরুণীকে ঝাড়ফুঁক করার নামে পাশের ঘরে নিয়ে যান তিনি।

ওই নারী আরো অভিযোগ করেন, ঘরে একা পেয়ে তরুণীর শ্লীলতাহানি করতে শুরু করেন মৌলভী। এ সময় বাধা দেন ওই তরুণী। তাতেও নিরস্ত হননি ওই মৌলভী।

এরপর সম্মান রক্ষায় চিৎকার শুরু ওই তরণীর। তরুণীর চিৎকার শুনে মসজিদে ভিড় করেন স্থানীয়রা। হাতে নাতে মৌলভীকে ধরে ফেলেন তারা। পরে ঘটনা থানায় জানানো হলে পুলিশ অভিযুক্ত মৌলভীকে আটক করেন।

মৌলভীকে আটক করে নিয়ে যাওয়ার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলিতে ছড়িয়ে পড়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here