জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের নিরাপদ ও টেকসই প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের প্রতি চাপ প্রয়োগে সুনির্দিষ্ট পদপে নেওয়ার জন্য জি-৭ নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল কানাডার কুইবেকে শিল্পোন্নত দেশগুলোর সংগঠনটির শীর্ষ সম্মেলনের আউটরিচ অধিবেশনে তিনি এ আহ্বান জানান। খবর বাসস।

শেখ হাসিনা বলেন, রোহিঙ্গাদের সমস্যার মূল মিয়ানমারেই নিহিত এবং তাদেরকেই এর সমাধান করতে হবে। অবশ্যই তাদের নিজগৃহে ফিরে যেতে হবে, সেখানেই তারা শত শত বছর ধরে বসবাস করে আসছে। আমরা ইতোমধ্যে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের অধিকার নিশ্চিত করতে মিয়ানমারের সঙ্গে চুক্তি করেছি। এ প্রক্রিয়া যাতে স্থায়ী ও টেকসই হয় সে জন্য আমরা এতে ইউএনএইচসিআরকে অন্তর্ভুক্ত করেছি।’ প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যু সমাধানে কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নে মিয়ানমার সরকারকে উদ্যোগ নিতে হবে বলেও উল্লেখ করেন।

এর আগে গতকাল স্থানীয় সময় বেলা ১২টায় কেবেকের লা মালবের লে মানোর রিশেলো হোটেলে পৌঁছলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানান সম্মেলনের আয়োজক কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। এবারের সম্মেলনে জি-৭ সদস্য দেশগুলোর পাশাপাশি বিশ্বের সম্ভাবনাময় ১৫ নেতা ও জাতিসংঘসহ চার আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধানদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। পরে আমন্ত্রিত নেতাদের সঙ্গে সম্মেলনের ওয়ার্কিং সেশনে যোগ দেন শেখ হাসিনা।

এদিকে স্থানীয় সময় শুক্রবার সম্মেলন ও আউটরিচ অধিবেশনে যোগ দিতে আসা রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানদের সম্মানে দেশটির গভর্নর জেনারেলের দেওয়া নৈশভোজে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গভর্নর জেনারেল জুলি পায়েট নগরীর লা সিটাডেলে নৈশভোজের আয়োজনটি করেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানান, শেখ হাসিনা সেখানে দণি আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা, ভিয়েতনামের প্রধানমন্ত্রী নগুয়েন জুয়ান ফুচ, হাইতির প্রেসিডেন্ট এবং ক্যারিবীয় সম্প্রদায়ের সভাপতি জোয়েনাল ময়েজি এবং নৈশভোজে যোগ দেওয়া অন্য অতিথিদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীও তার সঙ্গে ছিলেন।

জাস্টিন ট্রুডোর আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বৃহস্পতিবার চারদিনের সরকারি সফরে ঢাকা ত্যাগ করেন। জি-৭ শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী দেশগুলো ছাড়াও বিশ্বের ১৫ জন সম্ভাবনাময় নেতাকে আউটরিচ অধিবেশনে যোগদানের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ট্রুডো।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here