রাজধানীর মিরপুরের কাজীপাড়ায় জিনজিরাজ হাসান (৩২) নামে এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়ছে। শনিবার ভোর রাতে পশ্চিম কাজীপাড়ায় ওই ব্যক্তির শ্বশুড়বাড়ি থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, নিহত জিনজিরাজ একটি সুপার শপে ম্যানেজারের চাকরি করতেন। তার স্বজনদের দাবি, জিনজিরাজকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

নিহতের বোনের ছেলে রাজীব হোসেন জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহের শৈলকুপা থানায়। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে কাজীপাড়ায় হাসিনা আক্তার তৃণা নামে এক নারীকে বিয়ে করেন জিনজিরাজ। কিন্তু তার স্ত্রী তৃণার আগেও একটা বিয়ে হয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝামেলা হতো। এ কারণেই জিনজিরাজের শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে মেরে ঝুলিয়ে দিয়ে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিচ্ছেন।

মিরপুর মডেল থানার এসআই শাহ আলম জানান, ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবার অভিযোগ করছে এটি হত্যাকাণ্ড। তবে ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা ছিল।

মিরপুর মডেল থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, নিহত জিনজিরাজ কাজীপাড়ায় তার শ্বশুরবাড়িতেই থাকতেন। সকালে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ঘরের ভেতরে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয়। এরপরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠায়। তবে এটি আত্মহত্যা নাকি অন্য কিছু সেই বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করা হয়েছে। তদন্তের পরেই এই ব্যাপারে স্পষ্ট করে বলা যাবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here