ভারতের দেরাদুনে নবীণ ক্রিকেট খেলুড়ে দেশ আফগানিস্তানের সঙ্গে তিন ম্যাচের সিরিজে বাংলাদেশের হোয়াইটওয়াশের লজ্জার কারণ নিয়ে এখন চলছে কাটাছেড়া, বিশ্লেষণ। অবশেষে জানা গেল, দেরাদুনে বাংলাদেশ এতটাই বিশৃঙ্খল ছিল যে, উদিয়মান দুই ক্রিকেটার সাব্বির রহমান ও মেহেদি হাসান মিরাজ নাকি ড্রেসিং রুমেই জড়িয়েছিলেন মারামারিতেও।

জানা গেছে, আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে তিনটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামে বাংলাদেশ। সেই ম্যাচে রুবেল হোসেন ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের সঙ্গে বাদ পড়েন সাব্বির রহমানও। এর নেপথ্যের কারণ নাকি এই মারামরিও।

তবে খালি চোখে মনে হতে পারে, সাব্বিরের বাদ পড়ার কারণ আগের দুই ম্যাচের পারফরমেন্স। এর আগের দুই ম্যাচ মিলিয়ে হার্ডহিটার কথিত এই ব্যাটসম্যান করেন মাত্র ১৩ রান। কিন্তু বিসিবি সূত্র জানায়, প্রতিভাবান হওয়ায় নানা সময় নানা বিতর্কের জন্ম দেওয়ার পরও তারা সাব্বিরের উপর আস্থা রাখছিলেন। কিন্তু আফগানিস্তানের সঙ্গে শেষ ম্যাচে তাকে বাদ দেওয়া হয়েছে শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে।

বিসিবির এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ক্রিকবাজের খবরে জানানো হয়, ঘটনা মূলত দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি চলার সময়। ৫ জুন ম্যাচ চলাকালে ড্রেসিংরুমে সতীর্থ মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়ান সাব্বির। যা শেষ পর্যন্ত গড়ায় মারামারিতে। সাব্বির-মিরাজের ঝগড়ার বিষয়টি ধরা পড়ে বাংলাদেশ দলের সঙ্গে দেরাদুনে যাওয়া বোর্ডের এক কমর্কর্তার চোখে।

প্রত্যক্ষদর্শী ওই কমর্কর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘এটা তেমন বড় কোনো ইস্যু নয়, কেবলই ভুল বোঝাবুঝি। এমনকি এই ঘটনা ম্যানেজারের রিপোর্টেও উল্লেখ করা হয়নি।’

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধ রয়েছেন সাব্বির। নতুন করে শৃঙ্খলাভঙ্গের আরেকটি ঘটনা ২৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের জন্য আরও খারাপ ফলাফল বয়ে আনতে পারে ভেবেই বিষয়টিকে এড়িয়ে গেছেন দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন।

গেল বছরের ডিসেম্বরে রাজশাহীতে ঘরোয়া ক্রিকেটের ম্যাচ চলাকালে এক কিশোর ভক্তকে পিটিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধ হন সাব্বির। নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি জরিমানা হিসেবে দেন ২০ লাখ টাকা। এখানেই শেষ নয়, বাদ পড়েছেন বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকেও। এছাড়া এর আগেও শৃঙ্খলাভঙ্গের বেশ কিছু অভিযোগ ছিল সাব্বিরের বিরুদ্ধে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here