হবিগঞ্জে নায়ক শাকিব খানের বিরুদ্ধে সিএনজি চালকের মানহানি মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত। এদিকে ওই আদেশের বিরুদ্ধে রিভিশন করেছেন মামলার বাদী ।

মামলার বাদী ইজাজুর মিয়া বানিয়াচং উপজেলার যাত্রাপাশা গ্রামের সিএনজি অটোরিকশা চালক। রোববার জেলা দায়রা জজ মো. আমজাদ হোসেনের আদালতে রিভিশন করেন ওই সিএনজি চালক। বিচারক প্রাথমিক শুনানি শেষে রিভিশন গ্রহণ করে মামলার নিম্ন আদালতের নথি তলব করেন।

উল্লেখ্য, রাজনীতি সিনেমায় সংলাপের একাংশে চিত্রনায়ক শাকিব খান চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের উদ্দেশে পূর্ণ ডিজিটের একটি মোবাইল নম্বর বলেন। ওই নাম্বারটির মালিক হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের যাত্রাপাশা গ্রামের বাসিন্দা সিএনজি অটোরিকশা চালক ইজাজুল মিয়া।

এরপর থেকে ইজাজুল মিয়াকে বিভিন্ন স্থান থেকে শাকিব খান মনে করে অসংখ্য ভক্ত ফোন করতে থাকেন। এতে অতিষ্ট হয়ে পড়েন ইজাজুল মিয়া। দিন রাত অবিরত মোবাইলে ফোন আসার কারণে তাকে সিএনজি অটোরিকশা চালকের চাকরি হারাতে হয়। সংসার ভাঙ্গার উপক্রম হয়। একমাত্র সন্তানকে নিয়ে স্ত্রী চলে যায় পিত্রালয়ে।

এক পর্যায়ে কোনো উপায়ন্ত না পেয়ে তিনি হবিগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চিত্রনায়ক শাকিব খান, রাজনীতি সিনেমার পরিচালক বুলবুল বিশ্বাস ও প্রযোজক আশফাক আহমদের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও মানহানির অভিযোগে একটি মামলা করেন।

মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশের ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা শাকিব খানকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন জানিয়ে অপর দুইজনের বিরুদ্ধে আমল গ্রহণ করার জন্য প্রতিবেদন দেন।

প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সম্পা জাহান চিত্রনায়ক শাকিব খানকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দিয়ে অপর দুইজনের বিরুদ্ধে আমল গ্রহণ করেন। আদালতে বাদীপক্ষে মামলাটি শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী ত্রিলোক কান্তি চৌধুরী বিজন। তাকে সহযোগিতা করেন অ্যাডভোকেট এম এ মজিদ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here