গ্রামে বিদ্যুৎ না থাকায় বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুকে সৌদি আরব থেকে এক গ্রাহক ফোন দিয়েছেন। গ্রামে কেন বিদ্যুৎ থাকে না, মন্ত্রীর কাছে জানতে চেয়েছেন তিনি। মন্ত্রী এ তথ্য জানিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, মানুষ এখন খুব সচেতন। কিছু সময় বিদ্যুৎ না থাকলেই সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করে। রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবে জ্বালানি বিটের সাংবাদিকদের সংগঠন ফোরাম ফর এনার্জি রিপোর্টারস অব বাংলাদেশ (এফইআরবি) ইফতার অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, গ্রামে এখন বিদ্যুৎতের চাহিদা ১২ শতাংশ বেড়েছে। শহরে শহরে সেটা বেড়েছে ২০ শতাংশ হারে। এসব চাহিদা পূরণ করে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ মানুষকে দিতে আরও কয়েক বছর সময় লাগবে।

তিনি বলেন, এক সময় বিদ্যুৎ মন্ত্রনালয়ের বাজেট ছিল আড়াই হাজার কোটি টাকা। এখন সেটা ২৫ হাজার কোটি টাকা। এই মুহূর্তে পুরোপুরি নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে আরও ১০ বিলিয়ন বিনিয়োগ দরকার। ফলে আস্তে আস্তে গ্রাহক নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পাবে। তবে একটু সময় লাগবে।

সংগঠনের চেয়ারম্যান অরুণ কর্মকারের সভাপতিত্বে এ সময় প্রেসক্লােবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক শক্কুর আলী শুভ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সদরুল হাসান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here