পরীক্ষায় নানা অনিয়ম ও শৃঙ্খলা ভঙ্গে জড়িত থাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) এবং এর অধিভুক্ত সাত কলেজের ২২৯ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে শৃঙ্খলাবিরোধী কাজে জড়িত থাকায় ঢাবির কয়েকজন শিক্ষার্থীকে একাধিক তদন্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে বহিষ্কার এবং অধিভুক্ত কলেজের দুইশর বেশি শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় নকলে জড়িত থাকার অভিযোগে নানা মেয়াদে শাস্তির সুপারিশ করা হয়েছে। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

সোমবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে ‘বিশ্ববিদ্যালয় শৃঙ্খলা পরিষদ’ এর সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

উপাচার্য বলেন, ‘শৃঙ্খলাবিরোধী কাজ এবং পরীক্ষায় নকল করায় বিশাল সংখ্যক এই শিক্ষার্থীদের বহিষ্কারের সুপারিশ করেছে শৃঙ্খলা পরিষদ। ঢাবির যারা তাদের শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে এবং অভিভুক্ত কলেজের শিক্ষার্থীদের অধিকাংশকে নকলের দায়ে শাস্তি দেওয়া হয়েছে।’

শৃঙ্খলা পরিষদের সুপারিশকৃত এই শাস্তির পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এ বিষয়ে পরিষদের সদস্য সচিব ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রাব্বানী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গ, পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করায় বিশ্ববিদ্যালয় এবং এর অধিভূক্ত প্রতিষ্ঠানসমূহের ২২৯ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। তাদের ব্যাপারে আমাদের সিন্ডিকেট সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here