অপচয়কারী যে শয়তানের ভাই, তা মুসলমান দেশ হয়েও হয়তো বিশ্বাস করে না সৌদি আরব। নইলে বিশ্বে প্রতিদিন যখন লাখ লাখ মানুষ অভুক্ত থাকে, সেখানে কিভাবে দেশটি খাবার অপচয়কারীর তালিকায় বিশ্বে শীর্ষে অবস্থান নেয়।

সৌদি আরবে নাকি প্রতিবছর দেশটিতে উৎপাদিত খাদ্যের প্রায় ৩০ শতাংই নষ্ট হয়। যার মূল্য বছরে প্রায় ৪৯ বিলিয়ন রিয়াল। অর্থাৎ বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় এক লাখ কোটি টাকা। সম্প্রতি দেশটির পরিবেশ, পানি ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানা গেছে।

ওই প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম সৌদি গেজেট জানায়, একজন সৌদি নাগরিক প্রতি বছর গড়ে ২৫০ কেজি খাবার নষ্ট করেন। যেখানে বৈশ্বিকভাবে একজন ব্যক্তি গড়ে ১১৫ কেজি খাবার নষ্ট করেন।

খাবার অপচয়

ডিনার পার্টি, বিয়ের অনুষ্ঠান, রেস্টুরেন্ট ও বুফেতে বেশির ভাগ খাবার নষ্ট হয়। বিশ্বে খাদ্যশস্য ভোগের দিক দিয়েও এগিয়ে সৌদির নাগরিকরা। যেখানে বিশ্বে একজন মানুষ বছরে গড়ে ১৪৫ কেজি খাবার গ্রহণ করেন, সেখানে সৌদির নাগরিকরা খান ১৫৮ কেজি।

মক্কায় সৌদি ফুডব্যাংক ইতামের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আব্দুল্লাহ আল দারবাহ বলেন, ‘খাবার নষ্টের অন্যতম কিছু কারণ হচ্ছে এটি নিয়ে সমাজে সচেতনতার অভাব। ডিনারে আয়োজক ব্যক্তিদের দেখানোর মানসিকতা এবং অনেক রেস্টুরেন্ট ও হোটেলে খাবার ব্যবস্থাপনা সিস্টেম খুব দুর্বল। খাবার নষ্ট করা সীমিত রাখতে এখন আইনও আছে।’

ইতামকে দেশটির প্রথম ফুডব্যাংক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। তারা উচ্ছিষ্ট খাবার স্বাস্থ্যকর পন্থায় প্রক্রিয়াজাত করে ৪৮ ঘণ্টার নোটিশে ব্যক্তি ও সংস্থাকে খাবার সরবরাহ করে থাকে। সংস্থাটির ভাষ্য, রমজান মাস শুরু হওয়ার পর তাদের ৩৬০ জন স্বেচ্ছাসেবী দরিদ্র পরিবারগুলোকে এক কোটি ৭ লাখ ৪০ হাজার মিল সরবরাহ করেছে। আর পুরো বছরজুড়ে তারা গড়ে প্রতিদিন ৯ হাজার মিল বাঁচিয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here