সততার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন রিকশাচালক আক্তারুজ্জামান। রাস্তায় ৮৫ হাজার টাকার বান্ডিল কুড়িয়ে পেয়ে তা তিনি ফিরিয়ে দিয়েছেন আসল মালিকের কাছে।

সোমবার বেলা ২টার দিকে সিলেটের জিন্দাবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বয়োজ্যেষ্ঠ আক্তারুজ্জামানের বাড়ি নেত্রকোনা জেলায়। তিনি বেশ কিছু দিন ধরে সিলেট নগরীতে বসবাস করে রিকশা চালাচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানান, গতকাল জিন্দাবাজার এলাকায় তিনি ৮৫ হাজার টাকার বান্ডেলটি পড়ে থাকতে দেখে তা তুলে নেন। এ সময় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সামনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চলছিল। তখন তিনি কুড়িয়ে পাওয়া টাকাগুলো ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজ্জাদুল হাসান ও উম্মে সালিক রুমাইয়ার কাছে নিয়ে আসেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত যাচাইবাছাই শেষে প্রকৃত মালিকের কাছে টাকাগুলো হস্তান্তর করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজ্জাদুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গতকাল দুপুর ২টার দিকে জিন্দাবাজারে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সামনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চলছিল। এ সময় রিকশাচালক আক্তারুজ্জামান টাকা নিয়ে আসলে গুণে দেখেন তাতে ৮৫ হাজার রয়েছে। তখন প্রকৃত মালিক যাতে টাকা পায়, সেজন্য টাকার অঙ্ক গোপন রাখা হয়।

এর কিছুক্ষণের মধ্যেই রুবেল নামের এক ব্যক্তি দৌড়ে এসে জানান, প্রাইম ব্যাংক থেকে কিছুক্ষণ আগে টাকা তুলেছেন তিনি। তবে টাকা কোথাও পড়ে গেছে, এখানে রিকশাচালক তা পেয়েছেন শুনে তিনি এসেছেন।

তখন প্রাইম ব্যাংকের সিসিটিভির ফুটেজ দেখে এবং টাকার রশিদ মিলিয়ে সত্যতা পাওয়ায় তাকে টাকা বুঝিয়ে দেওয়া হয় বলে জানান তিনি। রুবেল জিন্দাবাজারের ইত্যাদি ফেব্রিক্সের কর্মচারি।

রিকশাচালক আক্তারুজ্জামানের সততা প্রশংসনীয় ও বর্তমান সময়ে বিরল বলে মন্তব্য করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজ্জাদুল হাসান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here