রাজধানীর কেন্দ্রীয় ঈদগাহসহ ঈদের গুরুত্বপূর্ণ জামাতগুলোয় নামাজ আদায় করতে আসা মুসল্লীরা ছাতা ও জায়নামাজ ছাড়া আর কিছু সঙ্গে রাখতে পারবেন না। মুসল্লীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেই পুলিশ কর্তৃপক্ষ এই ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

আজ জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাতের প্রস্তুতি পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

নগর পুলিশের এই শীর্ষ কর্তা বলেন, ‘জামাতকে কেন্দ্র করে কয়েক স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা, সিসি ক্যামেরা, ডগ স্কোয়াড, বোমা নিস্ক্রিয়কারী দল, সোয়াত, সাদাপোশাকের পুলিশ থাকবে। মুসল্লিরা জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া অন্য কিছু সঙ্গে আনতে পারবেন না।’

তিনি বলেন, ‘মুসল্লিদের আসার সময় মৎস্য ভবন ও ঈদগাহর প্রবেশপথে দুই দফা তল্লাশির মধ্য দিয়ে যেতে হবে। জামাত নারীরা হাতব্যাগও আনতে পারবেন না। রাজধানীবাসীকে আশ্বস্ত করে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঈদ কেন্দ্র করে জঙ্গি হামলার বড় কোনো হুমকি নেই। কারণ জামিনে বের হওয়া জঙ্গিদের বিশেষ নজরদারিতে রাখা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ২০১৬ সালে শোলাকিয়ায় যে মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যে জঙ্গি হামলা হচ্ছে- সেসব বিষয় বিবেচনায় রেখেই দেশে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়া এ বছর ঈদকে কেন্দ্র করে জঙ্গি হামলার বড় কোনো হুমকি নেই বলে রাজধানীবাসীকে আশ্বস্ত করেছেন তিনি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here