একটা ছোট পোকা। আর তাইই বিপদ ডেকে আনল যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা বছর পাঁচের ছোট্ট এক শিশুর জীবনে। ডেইলি মেইল প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, মিসিসিপির বাসিন্দা জেসিকা গ্রিফিন সকালে ঘুম থেকে উঠে তার মেয়ের আচরণে অস্বাভাবিকতা দেখেন।

জেসিকা জানান, সকালে তার মেয়ে কেইলিন ঠিক ভাবে কথাও বলতে পারছিল না। সঠিক ভাবে হাঁটাচলাও করতে পারছিল না সে। এর পরেই কেইলিনকে নিয়ে চিকিৎসকের কাছে যান জেসিকা। সেখানে গিয়ে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় তার।

দেখা যায়, কেইলিনের মাথায় একটি মাখায় কামড়ানোর দাগ রয়েছে। আর ঠিক তার পাশেই ঘোরাফেরা করছে ছোট্ট একটি পোকা।

জেসিকার মেয়ে কেইলিন

মেডিকেল রিপোর্টে জানা যায়, কেইলিনের শরীরে নিউরোটক্সিনের প্রভাব বেড়ে গিয়েছে। ওই পোকার কামড়েই কেইলিনের শরীরে নিউরোটক্সিনের প্রভাব বেড়ে গিয়েছে। প্রসঙ্গত, এই নিউরোটক্সিন একটি বিষাক্ত উপাদান। এর ফলে মানুষের মৃত্যুও হতে পারে। জানা গিয়েছে, এই পোকাটির লালাগন্থিতে নিউরোটক্সিন উৎপন্ন হয়।

ওই পোকার কামড়ে ক্রমেই পক্ষাঘাতগ্রস্থ হয়ে পড়ে কেইলিন। দু’দিন ধরে চিকিৎসার পর অবশেষে সুস্থ হয়ে উঠেছে ৫ বছরের কেইলিন। জেসিকা নিজেই ফেসবুকে একথা জানিয়ে আনন্দ প্রকাশ করেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here