সিনেমা বানানোর কথা বলে আড়াই কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেফতার কথিত চিত্রনায়িকা সাদিয়া আফরিনকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গত বুধবার ঢাকার মহানগর হাকিম নুরুন্নাহার ইয়াসমিন এ আদেশ দেন।

ঢাকার অপরাধ, তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপ-কমিশনার আনিসুর রহমান জানান, গত বুধবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে চিত্রনায়িকা সাদিয়া আফরিনকে ও তার স্বামী বিদ্যুৎ কুমার ওরফে সৌরভকে হাজির করে ১০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে সিআইডি।

অপরদিকে তাদের পক্ষে আইনজীবীরা রিমান্ডের আবেদন বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। সে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক চিত্রনায়িকা সাদিয়াকে একদিনের রিমান্ড ও স্বামীকে রিমান্ডের আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার বরাত দিয়ে সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার (লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া) শারমিন জাহান জানান, ২০১৩ সালে মো. মিজানুর রহমান খান নামের এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে ফেসবুকে সাদিয়া আফরিনের পরিচয় হয়। সেই পরিচয়ের সূত্র ধরে সাদিয়া আফরিন তাকে জানান, তার স্বামী বিদ্যুৎ কুমার ওরফে সৌরভ সিনেমা প্রযোজনা করেন। তিনি যদি তাদের সঙ্গে সিনেমায় বিনিয়োগ করেন তাহলে লাভবান হবেন।

সিনেমার নানান লাভের দিক দেখিয়ে সাদিয়া আফরিন ও তার স্বামী মিজানুর রহমানকে তিন কোটি টাকা সিনেমায় বিনিয়োগ করতে প্রলুব্ধ করেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে মিজানুর রহমান পর্যায়ক্রমে ব্যাংক হিসাব ও বিকাশ নম্বর এবং ডাকঘরের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে সর্বমোট দুই কোটি ৫০ লাখ টাকা তাদের দেন।

বেশ কিছুদিন পার হয়ে যাওয়ার পর তাদের বারবার তাগাদা দিলেও তারা সিনেমা না বানিয়ে টালবাহানা শুরু করেন। এরপর টাকা ফেরত চাইলে চিত্রনায়িকা সাদিয়া আফরিন সাফ জানিয়ে দেন, তিনি টাকা দিতে পারবেন না, আপনি যা পারেন করেন। উপায় না দেখে মিজানুর রহমান গত ২১ মে তাঁদের বিরুদ্ধে মিরপুর থানায় একটি মামলা করেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here