বিশ্বকাপ ফুটবল চলার সময় বিদেশি পুরুষদের সাথে যৌন সম্পর্ক না করতে রুশ নারীদের সতর্ক করে দিয়েছেন রাশিয়ার প্রভাবশালী একজন এমপি। কমিউনিস্ট পার্টির এমপি তামারা প্লেতনিওভা মস্কো রেডিওকে বলেছেন, আমি বিশ্বাস করি রুশ নারীদের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা পুরুষদের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করা উচিত না। খবর বিবিসির।

তিনি মনে করেন, তা নাহলে ‘তাদের সন্তানরা ভুগবে। কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন, ১৯৮০ সালে অনুষ্ঠিত গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের পর বিভিন্ন জাতির মিশ্রণে শঙ্কর শিশুর জন্মের হার নাটকীয়ভাবে বেড়ে গিয়েছিল। এরপর বিদেশি পিতারা তাদের সন্তানদের রাশিয়া ফেলে চলে গিয়েছিল।

তিনি আরো বলেন, পিতারা যদি রাশিয়ার হতো তাহলে এ সমস্যার সৃষ্টি হতো না। তাই রুশ মেয়েদের উচিৎ বিদেশি পুরুষদের কাছ থেকে সাবধান থাকা।

এদিকে, এ বক্তব্যের পর থেকে অনলাইনে তামারা প্লেতনিওভার কড়া সমালোচনা হচ্ছে। অনেকেই বলছেন, ফিফা যে বর্ণবাদ-বিরোধী প্রচারণা চালাচ্ছে, তার সঙ্গে এই বক্তব্য সাংঘর্ষিক।

রেডিওর একজন উপস্থাপিকা তায়ানা ফ্লেগেনগাওয়ার বলেছেন, এমপি প্লেতনিওভাও কি বলবেন যে তার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে। এর আগে টুইটারে একজন আইস স্কেটারের বর্ণবাদী মন্তব্যকে ঘিরে বিতর্ক সৃষ্টি হলে তিনি দাবি করেছিলেন যে কেউ তার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে ওই মন্তব্য করেছে।

কোন কোন সমালোচক এমপি প্লেতনিওভার মন্তব্যের জন্যে তাকে রুশ সংসদ দুমা থেকে বহিষ্কারেরও দাবি জানিয়েছেন। একজন মন্তব্য করেছেন, রুশ ওই এমপি প্রাপ্তবয়স্ক রুশ নারীদের আচরণ নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছেন।

অনেকে আবার প্লেতনিওভার কথার সঙ্গে একমতও পোষণ করেছেন। যেমন একজন লিখেছেন, আমাদের উচিত রুশ সন্তানকেই জন্ম দেয়া। এমপি ভুল কী বলেছেন? আরেকজনের মন্তব্য করেছেন, আমার মতে, সবারই মতামত প্রকাশের স্বাধীনতা থাকতে হবে, এমপি প্লেতনিওভারও সেই স্বাধীনতা আছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here