বিশ্বসেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি আটকে গেলে আর্জেন্টিনার আর কে পরিত্রাতা হয়ে উঠবেন! হয়েছেও তাই। রোববার আইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিনি যে শুধু গোলই পাননি তা নয়, পড়ন্তবেলায় নায়ক হয়ে ওঠার সুযোগও মিস করেছেন। ম্যাচের ৬৪ মিনিটে পেনাল্টিতে তার শট অনায়াসেই আটকে দেন গোলরক্ষক হ্যানস হলডোরসন। এর পর যেন নীল-সাদা জার্সিদারীদের আটকে যাওয়া প্রত্যাশিতই ছিল।

ম্যাচের ১৯ মিনিটে বক্সের ভিতর অসামান্য দক্ষতায় গোল করে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দিয়েছিলেন সের্জিও আগুয়েরো। কিন্তু ৪ মিনিটের মাথায় আলফ্রেড ফিনবোগাসন সমতা ফেরান। কিন্তু বল দখলের লড়াই দেকে মনে হচ্ছিল আইসল্যান্ডের ওপর এরপর ঝাঁপিয়ে পড়বে আর্জেন্টিনা। পড়েওছিল। দ্বিতীয়ার্ধে কোচ হর্হে সাম্পাওলি নামান বানেগাকে। তিনি নামার পর আক্রমণে তীক্ষ্ণতা বাড়ে।

খেলার ৬১ মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে সার্জিওকে ফেলে দেন আইসল্যান্ডের রক্ষণভাগের খেলোয়াড় ম্যাগনোসন। ভিআরের মাধ্যমে পেনাল্টি নিশ্চিত হয় আর্জেন্টিনার। ম্যাচ তখন ১-১ গোলে সমতায়। ৬৪ মিনিটে যথারীতি শটটি নিতে যান মেসি। কিন্তু চাপের মাথায় আরও একবার ভেঙে পড়লেন তিনি। তার শট আটকে দিয়ে ম্যাচের নায়ক হন আইসল্যান্ড গোলরক্ষক হ্যানস হলডোরসন। শেষ পর্যন্ত জয় না পাওয়ায় খলনায়ক বনে যান ফুটবল ঈশ্বরখ্যাত লিওনেল মেসি। আর ১-১ গোলের ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে আর্জেন্টিনাকে।

এদিকে ড্রয়ের পর খানিকটা চাপেই পড়ে গেল আর্জেন্টিনা। গ্রুপে তাদের পরের দুই প্রতিপক্ষ ক্রোয়েশিয়া ও নাইজেরিয়া। পরের রাউন্ডে ওঠার রাস্তা বেশ কঠিনই দেখাচ্ছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here