রাশিয়া বিশ্বকাপে ফেবারিট তত্ত্বে বুড়ো আঙুল দেখাচ্ছে নান্দনিক ফুটবল। টপ ফেবারিটদের শুরুটা তেমনই বলে। নবাগত আইসল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র দুইবারের চ্যাম্পিয়ন মেসির আর্জেন্টিনার। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানিতো হেরেই গেল মেক্সিকোর কাছে ১-০ গোলে। আশা ছিল দারুণ জয় দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে হট ফেবারিট নেইমারের ব্রাজিল। কিন্তু দৃশ্য একই। শেষ পর্যন্ত সুইজারলান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে হতাশার ড্র।

সব মিলিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপে টপ ফেবারিটদের শুরুটা ছন্নছাড়া, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কথা উঠতে পারে ফ্রান্সকে নিয়ে। তারাতো ২-১ গোলে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে মিশন শুরু করেছে। কিন্তু এখানেই থাকছে খাদ। পল পগবা জয়সূচক গোল করেছিলেন দলের হয়ে। দিন দুয়েক পর সেটি আর পগবার গোল থাকল না। হয়ে গেল আজিজ বেহিচের আত্মঘাতি গোল। তার মানে ওই গোলটি না হলে ফ্রান্সও ড্র করত। সব মিলিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপে ফেবারিট তত্ত্ব কাজে আসছে না। বরং গুটিকয়েক দল বাদে প্রায় সবাই ফেবারিট।

বাজে শুরুর ধারাটা আর্জেন্টিনার হাত ধরে। নবাগত আইসল্যান্ডের সঙ্গে অ্যাগুয়েরোর গোলে (১৯ মিনিট) লিড নিয়েও ধরে রাখতে পারেনি সাম্পাওলি শিবির। চার মিনিট পর ফিনবোগাসনের গোল, স্কোর ১-১। এরপরের অধ্যায় আর্জেন্টাইন ভক্তদের জন্য বেদনাদায়ক। অনেক চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি গোল নামক সোনার হরিণ। আফসোস বাড়িয়েছে মেসির পেনাল্টি মিস। সমালোচনার তীর মেসির দিকে ধেয়ে আসছে এখনো। তবে ম্যারাডোনা পাশে দাঁড়িয়ে বলেছেন, ‘আমি ধারাবাহিকভাবে পাঁচটি পেনাল্টি মিস করেও এখনো ম্যারাডোনাই আছি।’

আর্জেন্টিনার হয়ে ১৬টি পেনাল্টি নিয়েছেন মেসি, গোল ১৩টিতে। বিশ্বকাপ বলেই হয়তো চাপে আছেন বার্সা জাদুকর।
বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানির শুরুটা তো হলো হারে যন্ত্রণা দিয়ে। আকস্মিক হতাশায় বিহ্বল জার্মান সমর্থকরা। কোচ জোয়াকিম লো ফুটছেন রাগে। বিশ্বমানের টিম নয় জার্মানি, অপবাদ শুরু হয়ে গেছে। ৩৫ মিনিটে মেক্সিকোর হয়ে জয়সূচক একমাত্র গোল করে নায়ক বনে গেছেন লোজানো। যাদের ফুটবল শৈলি মুগ্ধ করছে দর্শকদেরও। কিন্তু কোথায় জার্মানির অ্যাটাকিং ফুটবল, খুঁজে পাচ্ছেন না দর্শকরা।

আর্জেন্টিনার ড্র, জার্মানির হার, ব্রাজিল কেমন করবে? সবার চোখ ছিল রোস্তভ অ্যারেনায়। শুরুটাও বেশ ভালো, ২০ মিনিটে কৌতিনহোর দুর্দান্ত গোল। লিড ব্রাজিলের। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের ৫০ মিনিটে সুইজারল্যান্ডের জুবারের হেড শেল হয়ে বিঁধল ব্রাজিলিয়ানরে বুকে। স্কোরলাইন ১-১। এরপর মুহূর্মুহ আক্রমণের পসরা সাজিও গোল পায়নি তিতের দল। ড্র মেনে মাঠ ছাড়ে সেলেসাও শিবির।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here