গত আসরে নেইমারকেন্দ্রিক ছিল ব্রাজিল। এবার তার সঙ্গে তুখোড় পারফরমার কৌতিনহো, ফিরমিনোসহ রয়েছেন এক ঝাক তারকা ফুটবলার। যাতে বেশ ব্যালান্সড সেলেসাও শিবির। সেই ব্রাজিলের মিশন শুরু হয়েছে সুইজারল্যান্ডের মতো দলের সঙ্গে ড্র দিয়ে।

ফলে নেইমারদের নিয়ে চলছে তুমুল সমালোচনা। ব্রাজিলিয়ান মিডিয়াতে করা হচ্ছে তুলোধুনো। ইএসপিএন ব্রজিল তাদের শিরোনাম করেছে, ‘নেইমার ছিলেন সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত।’ প্রতিবেদনে ইএসপিএন ব্রাজিলের প্রধান আর্নালল্ডো রিবেরিও বলেছেন, ‘তার (নেইমার) খেলা গ্রহণযোগ্য ছিল না। তাকে বদল করা উচিত ছিল। ব্রাজিল একটি ভালো দল এবং সমস্যা থেকে নিজেরে বের করে আনার সামর্থ্যও আছে তাদের। কিন্তু নেইমার একাই ম্যাচ জেতাতে চায়। এতেই তিনি ব্যর্থ।’

আরেকটু সংযোজন করে রিবেরিওর মন্তব্য, ‘সাম্প্রতিক অপারেশনের জন্য তার একটি অজুহাত আছে। কিন্তু তিনি পারফর্ম করতে পারেননি এবং দলের জন্য ভালো হয়, এমন কিছুও করতে পারেনি। এর চেয়ে ডগলাস কস্তাকে খেলানো অনেক ভালো ছিল। তবে এখনও বুঝতে পারছি না যে, কেন সে (কস্তা) খেলছেন না।’

তারকা ফুটবলার বলেই নেইমারের দিকে আক্রমণটা বেশি। তবে এই ম্যাচে তিনি ১০ বার ফাউলের শিকার হয়েছেন। যাতে ২০ বছর পর রেকর্ডবুকে ঢুকে গেছেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার। এক ম্যাচে ১০ বা তারও বেশি ফাউলের ঘটনা সর্বশেষ ১৯৯৮ বিশ্বকাপে। তিউনিশিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে ১১ বার ফাউলের শিকার হয়েছিলেন ইংল্যান্ডের অ্যালান শিয়েরার।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here