বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে বৈঠক করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা। রাজধানীর গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত এ বৈঠক হয়। আর এতে উঠে আসে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের লন্ডন সফর, তারেক রহমানের সঙ্গে তার বৈঠক, দলের তিন সদস্যের প্রতিনিধি দলের ভারত সফর, দলের সাংগঠনিক অবস্থা ও কমিটি গঠন নিয়ে ওঠা নানা অভিযোগ, আসন্ন গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন, খালেদা জিয়ার মামলা ও চিকিৎসার প্রসঙ্গ।

বৈঠকের প্রথমে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সম্প্রতি লন্ডন সফর নিয়ে আলোচনা হয়। সেখানে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা নিয়েও কথা বলেন মহাসচিব। এ ছাড়া সম্প্রতি দল পুনর্গঠনের নামে অনিয়মের চিত্র তুলে ধরা হয়।

এ সময় দলের স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির থানা এবং ওয়ার্ড কমিটি গঠনে অনিয়ম ও গঠনতন্ত্র ভঙ্গের অভিযোগ তোলেন। তিনি বলেন, এই কমিটি গঠনে থানা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে পদাধিকারবলে মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ও যুগ্ম-সম্পাদক করার ঘোষণা দিয়েছে মহানগর উত্তরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। এটা গঠনতন্ত্রের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। এটা উদ্বেগেরও বিষয়।

আরেকজন সদস্য বলেন, তারেক রহমানের দোহাই দিয়ে তারা এ অপকর্ম করেছেন। কিন্তু বিষয়টি তারেক রহমান অবগত থাকলে এবং তিনি প্রয়োজন মনে করলে স্থায়ী কমিটির বৈঠক ডেকে রেজুলেশনের মাধ্যমে গঠনতন্ত্র সংশোধন করা যেত। কিন্তু স্থায়ী কমিটির অনুমতি ছাড়া এ ধরনের গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন দলের মধ্যে খারাপ নজির সৃষ্টি করবে। তাই দ্রুত এ বিষয়ে পদপে নেওয়ার জন্য মহাসচিবকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সঙ্গে যোগাযোগের পরামর্শ দেন তারা।

দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দলের ভারত সফর বিষয়টিও আনুষ্ঠানিকভাবে বৈঠকে উপস্থাপন করা হয়। এ সময় একজন সিনিয়র নেতা ভারত সফরে সেখানকার গণমাধ্যমে দেওয়া তারেক রহমানের উপদেষ্টার বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন। তার এই ধরনের বক্তব্যের উদ্দেশ্য সম্পর্কেও জানতে চাওয়া হয়।

বৈঠকে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে গণসংযোগ ও প্রচারণার কৌশল নিয়েছেন তারা। ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দলের সিনিয়র নেতাদের দেখা করতে না দেওয়ার বিষয়টি নিয়েও আলোচনার করেন তারা।

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়াও বৈঠকে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু উপস্থিত ছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here