ফুটবলের সব সম্মান নিজের শোকেসে থাকলেও একমাত্র দেশের হয়ে এখনো কোনো ট্রফি জিততে পারেননি এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের একজন লিওনেল মেসি। বিষয়টি নিয়ে প্রায়ই মেসিকে টিটকিরি হজম করতে হয় যে-তিনি আসলে আসলে আর্জেন্টিনার জন্য খেলেন না বরং ক্লাব বার্সেলোনার জন্যই খেলেন। কখনো কখনো আর্জেন্টাইনদের এই সমালোচনার তীর এতটাই তীক্ষ্ণ হয়ে যায় যে, মেসিতো বটেই যা আক্রান্ত করে তার পরিবারকেও।

গত মঙ্গলবার আর্জেন্টিনার একটি চ্যানেলের টকশোতে এসে মেসির এই দুঃখের কথা জানিয়েছেন তার মা সেলিয়া কুচতিনি মেসি। চ্যানেল এস ত্রেসের ‘এল দিয়ারিও দো মারিয়ানা’ নামের ওই টকশোতে মেসির মা নন, এসেছিলেন সার্জিও আগুয়েরো, অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া, হাভিয়ের মাচেরানো, লুকাস বিগলিয়াসহ আরও অনেকের মায়েরাও। তবে সবচেয়ে বেশি দর্শকদের আঘাত করেছে মেসির মায়ের কথাগুলোই।

তিনি জানান, দেশের জন্য বিশ্বকাপ জিততে মেসি নাকি এতটাই মরিয়া যে এরজন্য অন্যান্য সব অর্জনও তিনি হারাতে রাজি। এমনকি সমালোচনায় বিদ্ধ হয়ে মাঝে মাঝে তিনি একা একা কাঁদেনও।

মায়ের সঙ্গে মেসি

সেলিয়া কুচতিনি বলেন, ‘লিওকে যে সমালোচনা সইতে হয়, তা আমাদেরও আঘাত করে। সবাই যে বলে ও জাতীয় দলের জার্সিটা ঠিক হৃদয় দিয়ে অনুভব করে না, বা শুধু দায়িত্বের খাতিরেই ও জাতীয় দলে খেলছে এসব একেবারেই সত্যি নয়। আমরা যা দেখি, সেটা যদি ওরাও দেখত! ওর ভোগান্তি, কান্না…এসব খুব ব্যথা দেয়।’

মেসির মা আরো বলেন, ‘সবার প্রথমে যদি কেউ বিশ্বকাপটা জিততে চায়, তবে সেটি লিও। ও কাপটা দেশে আনতে চায়। বিশ্বকাপটাকে নিজের করতে ও যেকোনো কিছুই করতে প্রস্তুত। এই ইচ্ছাটাই এখন ওর সবচেয়ে বড় ইচ্ছা।’

জাতীয় দলের জার্সিতে প্রথম শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে রাশিয়ায় শুরুটা ভাল করতে পারেননি মেসি। গত শনিবার গ্রুপ পর্বে আইসল্যান্ডের সঙ্গে আর্জেন্টিনার ১-১ ড্রয়ে বিশ্বকাপ শুরু করেছে আর্জেন্টিনা। খেলায় পেনাল্টি মিস করে এখন আর্জেন্টাইনদের কাছে রীতিমত ভিলেন হয়ে গেছেন মেসি। আজ ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনার বাঁচামরার লড়াই।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here