সঞ্জয় দত্তকে প্রথম রনবির কাপুর দেখেছিলেন ১৯৯৩ সালে ‘সাইবা’ ছবির শুটিংয়ে। কাশ্মীরে পাঠানি শুট এবং কানে দুল পরে পরে ওই সময় সিনেমার শুটিং করছিলেন সঞ্জয়। ঋষি কাপুরও ছিলেন সেখানে। সেখানে সঞ্জয়ের রাফ অ্যান্ড টাফ স্টাইল দেখে প্রথম দর্শনেই তার ভক্ত হয়ে পড়েন রনবির।

সেই থেকে শুরু, এরপর কখনও রনবিরকে নিয়ে রাতের মুম্বাইতে ঘুরতে বেরিয়ে পড়তেন সঞ্জয়, আবার কখনও জন্মদিনে দামি বাইক উপহার দিয়ে সঞ্জয় চমকে দিয়েছিলেন। রাজকুমার হিরানির নতুন ছবি ‘সঞ্জু’ এর প্রমোশনে এভাবেই সঞ্জয় দত্তকে নিয়ে স্মৃতির পাতা উল্টে নানারকম ছবি দেখালেন রনবির।

রনবির বলেন, তার বোন রিদ্ধিমা কাপুর সব সময় সালমান খানের পোস্টার নিজের ঘরে রাখতেন, কিন্তু তিনি ছিলেন সঞ্জয়ের ভক্ত। একবার জন্মদিনে যখন সঞ্জয় দত্ত তাকে দামি বাইক উপহার দেন, তা বাবার কাছ থেকে বেশ কিছুদিন লুকিয়ে রেখেছিলেন। ঋষি কাপুর বাইক একদম পছন্দ করতেন না। তাই বাইকের ধারপাশে ছেলেকেও ঘেঁষতে দিতেন না।

এরপর ঋষি কাপুরের চোখে সঞ্জয়ের দেওয়া বাইক চোখে পড়লে, বেশ কিছুটা রেগে যান তিনি। ঋষি সঞ্জয়কে বলেন, ‘ওর মাথাটা তুমি বিগড়ে দিও না। ওকে নষ্ট করো না। তোমার নিজের মত তৈরি করো না’।

যদিও, পুরোটাই অনুযোগের সুরে বলেছিলেন ঋষি কাপুর। কারণ, সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে কাপুর পরিবারের সম্পর্ক বরাবরই ভাল। তাই সঞ্জয় দত্ত যাতে দামি দামি উপহার রনবিরকে না দেন, সেই কথাই বলেন ঋষি কাপুর।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here