আইসল্যান্ডের সঙ্গে ড্র আর ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলের ব্যবধানে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ার একেবারে দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে আছে আর্জেন্টিনা। গ্রুপ পর্বে এখন দলটির বাকি আছে একটি খেলা। তাই অঙ্কের মারপ্যাঁচে হলেও দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার আশা একেবারে ছেড়ে দিচ্ছেন না দলটির ভক্তরা। তবে তার জন্য মেসি-আগেুয়েরোদের মেলাতে হবে জটিল সমীকরণ।

‘ডি’ গ্রুপ থেকে এরই মধ্যে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকিট পেয়েছে ক্রোয়েশিয়া। টেবিলের দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে আইসল্যান্ড। আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচে ড্র করে তাদের ঝুলিতে রয়েছে ১টি পয়েন্ট। আইসল্যান্ডের সমান ১ পয়েন্ট আর্জেন্টিনারও। তবে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় মেসিদের অবস্থান তৃতীয়। একটি ম্যাচ খেলে সেটিতে হেরে যাওয়া নাইজেরিয়া রয়েছে টেবিলের তলানিতে।

এ অবস্থায় ‘ডি’ গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় রাউন্ডের একটি টিকিটের জন্য লড়াইয়ে টিকে রয়েছে ক্রোয়েশিয়া ব্যতীত বাকি ৩ দলই। এর মধ্যে সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে আইসল্যান্ড। বিশ্বকাপের নবাগতদের মত নাইজেরিয়ারও বাকি ২টি ম্যাচ। শুক্রবার একে অপরের বিপক্ষে খেলবে দুই দল।

এই ম্যাচের ফলাফলের উপরেই অনেকাংশে নির্ভর করছে আর্জেন্টিনার দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার সম্ভাবনা। ভলগ্রোগাদ এরেনায় নাইজেরিয়ার বিপক্ষে আইসল্যান্ড ন্যুনতম ব্যবধানে জয় পেলেই কার্যত বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাবে আর্জেন্টিনা। আফ্রিকান ঈগলদের বিপক্ষে জয় পেলে ১ ম্যাচ হাতে রেখেই আইসল্যান্ডের পয়েন্ট হবে ৪। মেসিরা শেষ ম্যাচে জিতলে তাদের পয়েন্টও হবে ৪। কিন্তু গোল ব্যবধানে অনেক পিছিয়ে থাকায় শেষ হবে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ যাত্রা।

কারণ বর্তমানে পশ্চিম ইউরোপের দেশটির সাথে মেসিদের গোল পার্থক্য ৩! নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ন্যুনতম ব্যবধানে জিতলেও, আইসল্যান্ডের এই ব্যবধান বেড়ে হবে ৪। ফলে আর্জেন্টিনার শেষ ম্যাচে কমপক্ষে ৫ গোলের ব্যবধানে জয় পেতে হবে। যা কিনা অনেকটাই অসম্ভবই বলা চলে।

তবে শুক্রবারের ম্যাচটিতে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে আইসল্যান্ডের হার কিংবা ড্র; দুইটি ফলাফলই হাওয়া দেবে আর্জেন্টিনার পালে। ‘ডি’ গ্রুপের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে খেলবে আর্জেন্টিনা-নাইজেরিয়া ও ক্রোয়েশিয়া-আইসল্যান্ড। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে সেই ম্যাচে জয়ব্যতীত আর কোন পথ খোলা নেই মেসিদের সামনে। নাইজেরিয়াকে যেকোন ব্যবধানে হারিয়েই দ্বিতীয় রাউন্ডে পৌঁছতে পারবে আর্জেন্টিনা।

সেক্ষেত্রে তাদের অপেক্ষা করতে আইসল্যান্ডের ২টি ম্যাচের পরাজয় কিংবা ড্রয়ের। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে আইসল্যান্ড জিততে ব্যর্থ হলে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষেও যে জিততে কষ্ট হবে তাদের, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। ফলে শুক্রবারের ম্যাচের উপরেই টিকে আছে আর্জেন্টিনার সকল সমীকরণ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here