বিশ্বকাপে এই মুহূর্তে সবার নজর গ্রুপ ‘ডি’ এবং ‘ই’-এর সমীকরণের দিকে। গ্রুপ ‘ডি’ থেকে ক্রোয়েশিয়া আগেই প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে।

সুতোয় ঝুলছে আর্জেন্টিনার ভাগ্য। গ্রুপ ‘ই’-থেকে ব্রাজিল ও সুইজারল্যান্ড টপে থাকলেও এই গ্রুপ নিয়েও রয়েছে টানটান সমীকরণ। দেখে নেয়া যাক সেই সমীকরণ।

দুটো ম্যাচ খেলে ব্রাজিল এই মুহূর্তে ৪ পয়েন্টে রয়েছে। পরের ম্যাচ সার্বিয়ার বিরুদ্ধে। সার্বিয়ার ৩ পয়েন্ট। ব্রাজিল সার্বিয়ার বিরুদ্ধে জিতলে ৬ পয়েন্ট নিয়ে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে যাবে। যদি ড্র করে ৫ পয়েন্ট হবে ব্রাজিলের। আর সার্বিয়া যদি জেতে তা হলে ৬ পয়েন্ট হবে। সে ক্ষেত্রে ব্রাজিলের হবে ৫ পয়েন্ট।

‘ই’ গ্রুপে সুইজারল্যান্ডও ৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়ে। কোস্টারিকার সঙ্গে ড্র করলে ৫ পয়েন্ট হবে। যদি সুইজারল্যান্ড জেতে তা হলে ৭ পয়েন্ট নিয়ে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে যাবে। সে ক্ষেত্রে সার্বিয়া ও সুইজারল্যান্ড পরবর্তী পর্যায়ে যাবে, ব্রাজিল ছিটকে যাবে।

আইসল্যান্ড ও আর্জেন্টিনা দু’দলই যদি জেতে এবং দু’দলেরই গোল-পার্থক্য সমান হয়, তা হলে দেখা হবে কে কত গোল করেছে। সেই সংখ্যাও সমান হলে বিচার্য, কারা কম কার্ড দেখেছে।

যদি আইসল্যান্ড ১ গোলে হারায় ক্রোয়েশিয়াকে, তা হলে নাইজিরিয়াকে হারাতে হবে ৪ গোলের ব্যবধানে।

শেষ ম্যাচে যদি ক্রোয়েশিয়া হারায় আইসল্যান্ডকে, আর আর্জেন্টিনা জেতে নাইজিরিয়ার বিরুদ্ধে, তা হলে ৯ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ শীর্ষে থাকবে ক্রোয়েশিয়া। ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে দ্বিতীয় হয়ে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে যাবে আর্জেন্টিনা।

যদি আইসল্যান্ড বনাম ক্রোয়েশিয়া ম্যাচ ড্র হয়, আর মেসিরা হারান নাইজিরিয়াকে, তা হলেও ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে দ্বিতীয় হবে আর্জেন্টিনা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here