গাইবান্ধা সদর উপজেলায় বাবা-বামা-ছেলের ভেজাল ওষুধের কারখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। গতকাল সেখানে অভিযান চালিয়ে ভেজাল ওষুধ ও ওষুধ তৈরির উপকরণসহ কারখানা মালিকের স্ত্রী শেফালি বেগম ও ছেলে মেহেদী হাসানকে আটক করা হয়।

রোববার রাত ৯টার দিকে উপজেলার কুপতলা ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রাম থেকে ভেজাল ওষুধ ও ওষুধ তৈরির উপকরণ জব্দ ও তাদের আটক করা হয়। এ সময় টের পেয়ে কারখানার মালিক মশিউর রহমান মজিদ পালিয়ে যান। তিনি ওই গ্রামের মৃত নবির উদ্দিনের ছেলে।

সদর থানার ওসি খান মো. শাহরিয়ার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে নিজ বাড়িতে বিভিন্ন ধরনের ভেজাল হোমিও ওষুধ তৈরি করে বাজারজাত করছিলেন মশিউর রহমান মজিদ। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রকিবুল হাসান, জেলা ড্রাগ সুপার মো. জাহিদুল ইসলামসহ পুলিশের একটি দল নিয়ে তার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়।

এ সময় ভেজাল ওষুধ ও ওষুধ তৈরির উপকরণ জব্দ করা হয় ও কারখানার মালিকের স্ত্রী শেফালি বেগম ও ছেলে মেহেদী হাসানকে আটক করা হয়। এ ব্যাপারে থানায় মামলা করা হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here