দেবরকে পুলিশের হাত থেকে বাঁচাতে গিয়ে ভাবি এখন কারাগারে। সোমবার সন্ধ্যায় উল্লাপাড়ার পংরৌহা গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

উল্লাপাড়া থানার উপ-পরিদর্শক মো. শাহীন জানান, ওই গ্রামের মঈন উদ্দিনের অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে ময়না খাতুনের সঙ্গে উপজেলার মাটিকোড়া গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে তরিকুল ইসলামের বিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছিল। যথাসময়ে বরযাত্রীরা সেখানে আসেন।

বাল্যবিয়ের খবরটি প্রশাসনের কানে গেলে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। বিষয়টি টের পেয়ে কনের বাবার অনুরোধে বরযাত্রী হিসেবে আগত বরের ভাবি রিনা খাতুনকে দ্রুত কনে সাজিয়ে বিয়ের আসরে বসিয়ে রাখা হয়। রিনা বরের সহোদর ভাই আব্দুল জলিলের স্ত্রী।

তিনি জানান, কিন্তু ঘটনাটি ফাঁস হয়ে গেলে রিনা খাতুনকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ সময় বিয়ের আসরের অন্যরা পালিয়ে যান। বর্তমানে রিনা খাতুন থানা হাজতে আছেন।

ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here