ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে রুখে দিয়ে পর্তুগালের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে ইরান। গ্রুপপর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে উভয় দলের মধ্যে পয়েন্ট ভাগ হলেও ‘বি’ গ্রুপের রানার্সআপ হিসেবে ঠিকই শেষ ষোলোয় উঠেছে পর্তুগাল। ৩ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ৫ পয়েন্ট। শেষ ষোলোয় পর্তুগালের প্রতিপক্ষ উরুগুয়ে।

একটা ফুটবল ম্যাচের এত সুন্দর দৃশ্যপট বোধহয় কেউ আঁকতে পারবে কি-না সন্দেহ। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে পেনাল্টি পায় পর্তুগাল। স্পট কিক থেকে পেনাল্টি মিস করে বসেন গ্রুপের প্রথম ম্যাচেই স্পেনের বিপক্ষে পেনাল্টিতে গোল করা রোনালদো। ম্যাচের উত্তেজনা ছড়ায় শেষ মিনিট পর্যন্ত। অতিরিক্ত সময়ে ভিএআরের সহায়তায় পেনাল্টি থেকে গোল করে ১-১ সমতায় আসে ইরান।

কিন্তু সেটাও যথেষ্ট ছিল না তাদের জন্য। ড্র করে বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নিতে হলো দেশ ইরানকে। অন্যদিকে স্পেন শেষ সময়ের গোলে ড্র করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়াতে পর্তুগালকে দ্বিতীয় হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো গ্রুপে।

বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের নিজেদের শেষ ম্যাচে ইরানের বিপক্ষে মাঠে নামে পর্তুগাল। দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে এই ম্যাচে ড্র করলেই চলতো পর্তুগালের। অন্যদিকে, জিততেই হতো এশিয়ান জায়ান্ট ইরানের। এমন কঠিন সমীকরণের ম্যাচে পর্তুগালের সঙ্গে সমান পাল্লা দিয়ে লড়াই করেছে ইরান। প্রথমার্ধে পর্তুগালের কারেজমার গোলে এগিয়ে গেলেও ম্যাচে অন্তিম মুহূর্তে গোল করে ইরানকে সমতায় ফেরান আনসারিফার্দ।

প্রথম দুই ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও শুরুতেই গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন রোনালদো। কিন্তু তিন মিনিটের মাথায় ডি বক্সের ভেতর তার নেয়া শট রুখে দেন ইরানিয়ান গোলরক্ষক। ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগটি আসেন নয় মিনিটি। হোয়াও মারিও ফাঁকা গোলপোস্ট পেয়েও বল গোলবারের বাইরে মারেন।

২৩ মিনিটে গোলের সুযোগ পেয়েছিল ইরানও। জাহানবাখশের বাড়ানো বল আজমাউনের পা ছোঁয়ার আগেই বলকে তালুবন্দী করেন পর্তুগিজ গোলরক্ষক রুই প্যাট্রিসিও। ৪০ মিনিটে ৩৫ গজ দূর থেকে রোনালদো দারুণ এক শট নিলেও সেটি রুখে দেন বেইরানভান্দ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here