গাজীপুর নগরীর মেয়র ও কাউন্সিলর নির্বাচনে আজ সকাল থেকে নিজেদের রায় দিতে শুরু করেছেন ভোটাররা। সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের এই ভোট সকাল ৮টায় শুরু হয়ে একটানা চলবে বিকেল পর্যন্ত। বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া কেন্দ্রগুলোতে এখনো তেমন কোনো গোলোযোগের খবর পাওয়া যায়নি। নির্বাচন কমিশন আশা করছে আজ রাতের মধ্যেই বেসরকারিভাবে ফল ঘোষণা সম্ভব হবে।

এদিকে মঙ্গলবার সকালে নগরীতে সামান্য বৃষ্টি হলেও এখন আর সেটা নেই। তারপরও ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটার সংখ্যা একেবারেই কম। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার বাড়বে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

নির্বাচনকে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ করতে নির্বাচন কমিশন এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব রকম পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন গাজীপুর সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার রকিব উদ্দিন মন্ডল। নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় সূত্র জানায়, নির্বাচনে ২৯ প্লাটুন বিজিবি দায়িত্ব পালন করছে। নির্বাচনের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, এবিবিএন, আনসারসহ আইনশৃংখলা বাহিনীর প্রায় ১১ হাজার সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

মেয়েকে নিয়ে ভোট দিতে এসেছিলেন জাহাঙ্গীর আলম

নগরীর ৫৭টি ওয়ার্ডে পুলিশ ও আনসারের সমন্বয়ে ৫৭টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, সংরক্ষিত আসনে ২০টি স্ট্রাইকিং ফোর্স রয়েছে। এছাড়া ৫৭টি ওয়ার্ডে ৫৭টি এবং অতিরিক্ত একটিসহ মোট ৫৮টি টিম মোতায়েন রয়েছে।

প্রতি দুইটি ওয়ার্ডে এক প্লাটুন করে মোট ২৯ প্লাটুন বিজিবি দায়িত্ব পালন করছে। এদের মধ্যে ৭ প্লাটুন কোনাবাড়ি ও কাশিমপুর এলাকায়, ১০ প্লাটুন টঙ্গী এলাকায় এবং ১২ প্লাটুন জয়দেবপুর, বাসন চান্দনা চৌরাস্তা ও কাউলতিয়া এলাকায় দায়িত্ব পালন করছে।

এছাড়া পুলিশ, এপিবিএন ও ব্যাটালিয়ান আনসার সমন্বয়ে ৫৭টি ওয়ার্ডে ৫৮টি মোবাইল ফোর্স, ২০টি স্ট্রাইকিং ফোর্স নিয়োজিত রয়েছে।

ভোট দিচ্ছেন হাসান উদ্দিন সরকার

নির্বাচনের আগে ও পরে চার দিন ৫৭টি ওয়ার্ডে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত রয়েছেন। আরো ১০ জন অতিরিক্ত হিসেবে সর্বমোট ৬৭ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতায়েন রয়েছেন। সিটি কর্পোরেশনের প্রতি তিনটি ওয়ার্ডের জন্য একজন করে মোট ১৯ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত রয়েছেন। তারা ২৪ জুন থেকে ২৭ জুন পর্যন্ত নগরীতে দায়িত্ব পালন করছেন।

এদিকে নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম। জনগণ যে রায় দেবে তা তিনি মাথা পেতে নেবেন বলে জানিয়েছেন। অন্যদিকে নির্বাচনে এরইমধ্যে অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোট সুষ্ঠু হবে না বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। তবে তিনি ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত মাঠে থেকে লড়াই করবেন বলে জানিয়েছেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here