চার বারের চ্যাম্পিয়ন, চার বারের রানার্স আপ। বিশ্বকাপ ফুটবলে জার্মানি এক পরাশক্তি। সেই শুরু থেকেই। সর্বশেষ ব্রাজিল বিশ্বকাপটাও তাদের। যেখানে আর্জেন্টিনাকে কাঁদিয়ে শিরোপা উৎসব করেছিল মুলাররা। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপেই মুদ্রার উল্টো রূপ দেখল হিটলারের দেশটি। শিরোপা দূরে থাক, গ্রুপ পর্বের বৈতরণীই পার হতে পারেনি জার্মানি। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে ২-০ গোলে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে টনি ক্রুসরা। ১৯৩৮ সালের পর এই প্রথম বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিল জার্মানি।

চলতি বিশ্বকাপে যা বড় অঘটন। তবে ইতিহাসের ধারা বিবেচনা করলে এটা যেন ঠিকই। কারণ গত দুটি বিশ্বকাপই ঘটেছে এমন ঘটনা। চ্যাম্পিয়নরা নিয়েছে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায়। ২০০৬ বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ইতালি। অথচ সেই ইতালি ২০১০ দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ। ২০১০ বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন স্পেন। তারাই আবার ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে বিদায় নেয় গ্রুপ পর্ব থেকে। সাবেক দুই বিশ্বচ্যাম্পিয়নের দেখানো পথ ধরে এবার বিদায় নিল জার্মানিও।

এফ গ্রুপের শুরুটা বাজে ছিল জার্মানির। প্রথম ম্যাচেই হেরে যায় মেক্সিকোর সঙ্গে। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে ক্রুস চমকে সুইডেনকে হারিয়ে বিশ্বকাপের স্বপ্ন জিইয়ে রাখে জার্মান শিবির। শেষ ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে জয়ের কোন বিকল্প ছিল না তাদের সামনে। কিন্তু সেই সহজ কাজটি করতে পারেনি তারা। উল্টো হারল ২-০ গোলের ব্যবধানে।

কাজান এ্যারিনায় ৯০ মিনিট পর্যন্ত দুই দলের লড়াই ছিল গোলশূন্য ড্র। একটি মাত্র গোল পেলেই বিশ্বকাপে টিকে থাকত জার্মানি। কিন্তু না, অতিরিক্ত সময়ের তৃতীয় মিনিটে জার্মানির জাল কাঁপান কিম ইয়ং ওন। যদিও লাইন্সম্যান তোলেন অফসাইডের পতাকা। পরে ভিএআর দেখে সিদ্ধান্ত পাল্টান রেফারি। গোলের বাঁশি বাজান কোরিয়ার পক্ষে। গোলশোধের নেশায় উন্মত্ত তখন জার্মান শিবির। জার্মান গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নয়্যার উঠে আসেন মাঝ মাঠে। এর বোকামির কারণে আরও এক গোল হজম। শেষ মুহূর্তে গোলটি করেন ক্ষিণ কোরিয়ার সন ইয়ং মিন। টানা দুই হারে বিপর্যস্ত কোরিয়া একটি জয় নিয়ে অন্তত বিায় নিতে পারল। সঙ্গে নাস্তানাবুদ করল জার্মানদের স্বপ্নও।

গ্রুপের অপর ম্যাচে মেক্সিকোকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসাবে নক আউট পর্বে নাম লিখিয়েছে সুইডেন। রানার্স আপ মেক্সিকো। দুই দলের পয়েন্টই সমান, ৬। তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে সুইডেন। তিন পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় কোরিয়া, জার্মানি সবার নিচে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here