ফরিদপুরের সালথা উপেজলায় গলায় ফাঁস দিয়ে রূপসি আক্তার (১৭) নামের এক কিশোরী আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার সকাল ১১ টার দিকে উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের আশ্রয়ণ কেন্দ্র থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

রূপসী ওই আশ্রয়ণ কেন্দ্রের বাসিন্দা আকু শেখের মেয়ে। সে দীর্ঘদিন ধরে পেটের ব্যথায় ভুগছিল।

আশ্রয়ণ কেন্দ্রের বাসিন্দারা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে পেটের ব্যথা মারাত্মকভাবে বেড়ে গেলে তা সহ্য করতে না পেরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে নিজ ঘরের আঁড়ার সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করে রূপসী। এ সময় বাড়িতে কেউ ছিল না।

নিহতের মা নিহার বেগম বলেন, মেয়েটি দীর্ঘদিন ধরে পেটের ব্যাথায় ভুগছিল। টাকার অভাবে মেয়েটিকে আমরা চিকিৎসা করাতে পারি নাই। ঘটনার রাতে আমার স্বামী খালে মাছ ধরতে গিয়েছিল, আর আমি তার খাবার দিতে গিয়েছিলাম। ঘরে ফিরে এসে মেয়েকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে ওড়না কেটে নামিয়ে তাৎক্ষণিক তাকে নগরকান্দা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

সালথা থানার ওসি মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরীর মরদেহ ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here