খেলার ছলে ট্রেনে উঠে পড়েছিল সে। কিন্তু নামার আগেই ট্রেন ছেড়ে দেয়। তারপর পৌঁছে যায় অজানা এক ঠিকানায়। ভুলে যায় আসল ঠিকানাও। চারদিকে অবাক হয়ে শুধু স্বজনদের খুঁজছে। আর থেমে থেমে কাঁদছে।

বলছিলাম ছোট্ট শিশু মোবারকের কথা। সে এখন ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। মা-বাবাকে ফিরে পেতে সে ব্যাকুল। বাড়ি ফিরতে চায় সে।

ঈশ্বরগঞ্জ পৌর এলাকার পাইভাকুড়ি গ্রামের পরিবহন শ্রমিক মো. আনিস মিয়া শুক্রবার রাতে নিজের বাড়ির কাছে পান শিশুটিকে। অপ্রকিৃতস্থ অবস্থায় তাকে পাওয়ার পর আনিস মিয়া নিজের বাড়িতে নিয়ে তাকে সুস্থ করে পরিবারের কাছে ফেরাতে চেষ্টা করেন।

তবে শিশুটির কাছ থেকে সঠিক কোনো ঠিকানা না পাওয়ায় গত শনিবার সন্ধ্যায় ঈশ্বরগঞ্জ থানায় নিয়ে যান আনিস। থানায় গিয়ে শিশু মোবারক জানায় তার বাবার নাম সাদেক মিয়া। মা বেদেনা আক্তার। তাদের বাড়ি নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার গৌরীপুরে। তার বাবা ভৈরবের একটি কয়েল ফ্যাক্টরিতে কাজ করেন। তার বড় ভাই ইয়াছিন (১০) সিএনজি গ্যারেজে কাজ করে। তার দুই বোন সাদিয়া এবং জান্নাতুল।

বিষয়টি নিয়ে আনিস মিয়া শনিবার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে মোবারককে পুলিশের জিম্মায় রেখে যান।

এদিকে পুলিশ মোবারককে পরিবারের কাছে ফেরাতে বিভিন্ন থানায় বার্তা পাঠিয়েছে। কিন্তু তার পরিবারের কোনো হদিস পাওয়া যাচ্ছে না।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here