ভালোবাসার প্রমাণ দিতে প্রেমিকার বাসার সামনে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির এক নেতা। বুধবার মধ্য প্রদেশের ভোপালের শিবাজি নগর এলাকার এ ঘটনায় অতুল লোখণ্ডেরক নামে ওই বিজেপি নেতাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দেশটির গণমাধ্যম জানায়, দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে প্রেম করেছেন স্থানীয় ওই বিজেপি নেতা। বিয়ের সিদ্ধান্তও নিয়ে ফেলেছিলেন। কিন্তু প্রেমিকার বাবা ঝামেলা শুরু করেন। ওই তরুণীর বাবা অতুল লোখণ্ডকে জানিয়ে দেন, তার বাড়িতে এসে আত্মঘাতী হয়ে ভালবাসার প্রমাণ দিতে হবে। এনিয়ে দুইজনের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ কথা কাটাকাটিও চলে। তারপরই তার বাড়িতে তরুণ বিজেপি নেতাকে আমান্ত্রণ জানান প্রেমিকার বাবা।

প্রেমিকার বাড়িতে যাওয়ার আগে ফেসবুকে একটি দীর্ঘ পোস্ট দেন অতুল। তিনি লেখেন, ‘তার বাবা আমাকে সন্ধ্যাবেলা বাড়িতে যেতে বলেছেন। সেখানে গিয়ে আত্মঘাতী হয়ে আমাকে ভালবাসার প্রমাণ দিতে বলেছেন। যদি আত্মহত্যা করতে গিয়ে বেঁচে যাই, তবে মেয়ের সঙ্গে আমার বিয়ে দেবেন। তাদের বাড়িতে গিয়ে মরে গেলে আমায় নিয়ে আসবেন। যদি আমি বেঁচে যাই তাহলে নিজেই চলে আসব।’

এরপর প্রেমিকার উদ্দেশ্যে আরও একটি পোস্ট করেন ওই যুবক। তিনি লেখেন, ‘আমি তোমায় ছাড়া বাঁচব না। সেজন্যই যাচ্ছি। অনেকেই প্রেমে পড়েন। কিন্তু তোমাকে আমার মতো কেউই ভালবাসতে পারবে না। আমি তোমায় ভুলতে পারব না। আসলে ভুলতে চাই না তোমায়। কেননা তুমি আমার। সারাজীবন তোমায় ভালবাসব। মরার আগে পর্যন্ত থাকা ভালবাসা পরেও থাকবে। সব প্রেমিক তাঁদের প্রেমিকাকে হৃদয় দেয়। শুধু আমি জীবন দেব।’

এরপর যুগলের ৪০টি ছবি পোস্ট করে প্রেমিকার বাড়ির দিকে রওনা হয়ে যান অতুল লোখণ্ডে।

এ প্রসঙ্গে ভোপাল দক্ষিণের পুলিশ সুপার রাহুল লোধা জানিয়েছেন, গুরুতর আহত যুবকের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। পুলিশ একটি মামলা করেছে। ঘটনার তদন্তও শুরু হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here