মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় এসেই ২০১৭ সালের আগস্টে ভেনেজুয়েলা দখল করতে চেয়েছিলেন বলে খবর বেড়িয়েছে। ভেনেজুয়েলার ওপর কূটনৈতিক অবরোধ আরোপের লক্ষ্যে পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টাদের সঙ্গে এক আলোচনায় ট্রাম্প এ প্রসঙ্গ তোলেন বলে নিশ্চিত করেছেন একজন প্রত্যক্ষদর্শী সরকারি কর্মকর্তা।

তবে ট্রাম্পের তৎকালীন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এইচআর ম্যাকমাস্টার এ দখল চেষ্টার বিরুদ্ধে জোরালো অবস্থান নেন। তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ভেনেজুয়েলায় কোনো ধরনের মার্কিন সামরিক হস্তক্ষেপ হিতে বিপরীত হতে পারে এবং ওই অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের মিত্ররাও বিষয়টি একদমই ভালোভাবে নেবে না।

ভেনেজুয়েলার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক দূরাবস্থার জন্য দেশটির শাসকগোষ্ঠীকে দায়ী করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। এজন্য যুক্তরাষ্ট্র দীর্ঘদিন ধরে দেশটির বিরুদ্ধে কূটনৈতিক অবরোধ আরোপ করে আসছে। ম্যাকমাস্টার ট্রাম্পকে এই বলে হুঁশিয়ার করেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্র এখন যদি ভেনেজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপ করে, তাহলে মার্কিনিদের দীর্ঘদিনের এ প্রচেষ্টা ধুলোয় মিশে যাবে।

গত আগস্টে ট্রাম্পের মাথায় এই ধারণা আসার পর তার নিরাপত্তা উপদেষ্টা ছাড়াও ল্যাটিন আমেরিকার বিভিন্ন দেশের নেতাদের সঙ্গেও ভেনেজুয়েলায় মার্কিন সামরিক হস্তক্ষেপ নিয়ে আলোচনা করেছেন। জাতিসংঘ অধিবেশনের ফাঁকে ট্রাম্প এসব দেশের নেতাদের সঙ্গে ব্যাপারটি নিয়ে আলোচনা করলেও সবাই ট্রাম্পের এ প্রস্তাব নাকচ করে দেন। তারা সবাই ট্রাম্পকে জানান, ওই অঞ্চলে কোনো মার্কিন সামরিক হস্তক্ষেপ চান না তারা।

ওই প্রত্যক্ষদর্শী সরকারি কর্মকর্তা বলেন, ‘এখনো কোনো ধরনের মার্কিন সামরিক হস্তক্ষেপের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। প্রেসিডেন্ট অন্য বিকল্প নিয়ে সক্রিয়ভাবে চিন্তা-ভাবনা করছেন।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here