রাশিয়া বিশ্বকাপে ডার্ক হর্সের তালিকায় ছিল ক্রোয়েশিয়া। ইভান র‌্যাকিটিচ-লুকা মডরিচ-মানজুকিচ নিয়ে দলটির আক্রমণভাগ শক্তিশালী। তবুও মেসি-রোনালন্দো-নেইমারদের ভিড়ে তাদেরকে ফেবারিটের তালিকায় রাখা হয়নি।

কিন্তু গ্রুপ পর্বে মেসির আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ৩-০ গোলে জয় তুলে নিজেদের শক্তির জানান দেয়। ধীরে ধীরে একের পর এক বাধা পার হয়। কোয়ার্টারের ফাইনালের বাধা পার হয়ে এখন ইতিহাস গড়ার পথে তারা।

স্বাধীন ক্রোয়েশিয়ার জন্ম ১৯৯২ সালে। মাত্র ছয় বছর পর ১৯৯৮ বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পায়। অভিষেক বিশ্বকাপে। সেমিফাইনালে খেলে। তবে স্বাগতিক ফ্রান্সের কাছে হেরে যায়। শেষ পর্যন্ত নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে তৃতীয় স্থান অর্জন করে।

এরপর তিনটি বিশ্বকাপ খেলে। কখনো নক আউট পর্বে খেলতে পারেনি। আর ২০১০ বিশ্বকাপে বাছাই পর্ব থেকেই বিদায় নেয়। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে দেভর সুকারের হাত ধরে তৃতীয় হয় ক্রোয়েশিয়া। ২০১২ সালে তাকে ফুটবল ফেডারেশনের প্রধান করা হয়। এবারও ঠিক ছয় বছর পর ফের সেমিতে ইউরোপের দলটি।

১৯৯৮তে স্বাগতিকদের সঙ্গে হেরে যায়। এবার স্বাগতিক রাশিয়ার সঙ্গে তাদের দেখা হয় কোয়ার্টার ফাইনালে। সেই বাধা পার হয়ে গেছে। টাই-ব্রেকারে জয় তুলে শেষ চারে নাম লেখায়। এবার ১৯৬৬ বিশ্বকাপ জয়ী ইংল্যান্ডকে হারাতে পারলে প্রথমবারের মতো ফাইনালে নাম লেখাবে তারা।

ক্রোয়েশিয়া গ্রুপ পর্বে দাপট দেখায়। নাইজেরিয়া ২-০ গোলে হারানোর পর আর্জেন্টিনাকে হারায় ৩-০ গোলে। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পায় ২-১ গোলে। পূর্ণ নয় পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ সেরা হিসেবে শেষ ষোলোতে আসে।

তবে নক আউট পর্বের একটি ম্যাচেও মূল খেলায় জয় পায়নি ক্রোটরা। শেষ ষোলোতে ডেনমার্কের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে। পরে টাই ব্রেকারে ৩-২ গোলে জয় পায়। কোয়ার্টার ফাইনালে রাশিয়ার সঙ্গে ২-২ সমতায় খেলা শেষ করে। অবশেষে টাই-ব্রেকারে ৪-৩ গোলে জয় পায়। দুটি ম্যাচেই তারা প্রথমে গোল হজম করে। পরে সমতায় ফেরে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে উন্নতি করতে না পারলে হয়তো ইতিহাসের দোড়গোড়ায় থেকে বিদায় নিবে তারা।

কোয়ার্টার ফাইনালে সুইডেনের বিপক্ষে ২-০ গোলে জয় পেলেও শেষ ষোলোতে জয় পেতে বেশ বেগ পেতে হয় ইংল্যান্ডের। কলম্বিয়ার বিপক্ষে ১-১ গোলে সমতায় থাকার পর টাই-ব্রেকারে ৪-৩ গোলে জয় পায়। তবে হ্যারি কেনদের সমন্বয় দুর্দান্ত আক্রমণভাগের সামনে মড্রিচরা কতটা ভালো করতে পারবে সেটাই দেখার বিষয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here